প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] যশোরে নতুন ৪৯ জন কোভিডে আক্রান্ত

র‌হিদুল খান : [২] খুলনা মেডিকেল কলেজ থেকে সোমবার রাতে যশোরের যে ৬৭ জনের শরীরে কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে যশোর শহরসহ সদর উপজেলায় রয়েছেন ৪৯ জন। এছাড়া ঝিকরগাছা উপজেলার ৬জন, শার্শার ৬, মণিরামপুরের ৪ এবং কেশবপুর ও চৌগাছার ১জন করে রয়েছেন তালিকায়।

[৩] স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, যশোর শহরসহ সদর উপজেলায় করোনা রোগী হিসেবে শনাক্তরা হলেন, শানতলার আল মামুন (৪৬), দৌলতদিহির শাহিনুর (৪০), বেজপাড়ার লক্ষ্মী (৩১) ও বর্ণ (১০), বসুন্দিয়া মোড়ের আলী হোসেন (৭১) ও সোহেল (৩৭), শাখারিপট্টির আশরাফুল আলম (৫৩), ষষ্ঠিতলাপাড়ার এসএম ইমরোজ আলম (৪৩), কাজীপাড়ার শাহনাজ পারভীন (৫১) ও মাহফুজ খান (৫৫), ৯৩ জেল রোডের নুরজাহান নেসা (৮৪), এস কে মাহমুদ ইমাম (৬৬), বারান্দি মোল্লাপাড়ার মোস্তাক (৪২) ও খোরশেদ মোড়ল (৭৩), মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের বাহাউদ্দিন (৩৫), নীলগঞ্জের তাপস ঘোষ (৪২), বাবলাতলার হামিদা (৫৮), ঘোপের মোহসিন আলী (৩৭), মামুন (৩০) ও মুসাব্বির (৫১), ব্যাংকপাড়ার প্রভাসকুমার মণ্ডল (৪২), রেল রোডের জোবাইদা সুলতানা (৫৩), বাগপাড়ার দেবদাসকুমার বিশ্বাস (৩৭), ভেকুটিয়ার আকবর আলী (৬৭), খালধার রোডের হাফিজুর রহমান (৪৫), তানিয়া (২৮) , আবু তারেক (৪২) ও নাজমা আক্তার (৪৫), পারবাগানের মুকুল (৩৫), বালিয়া ভেকুটিয়ার কমল (৪৪), খোলাডাঙ্গার আবির (২৭), নাজির শংকরপুরের সৈয়দ মাহবুবুল আলম (৩৮), শ্যামপুরের মোকাররম (৪০), পালবাড়ির শরিফুল ইসলাম (৪০) ও এস কে রবিউল ইসলাম (৪৬), উপশহরের জোয়ার্দার দিলারা (৪০) ও বিথী (২৯), কিসমত নওয়াপাড়ার ফারহানা ফেরদৌস (৩৫) ও মোস্তফা (৭০), রাজাপুরের মনু মিয়া (৩৫), রেলগেটের শরিফুজ্জামান (৬০) ও বাবু (৩০), বারান্দীপাড়ার মানিক (৩৩), পুলিশ লাইনের জীবনকুমার দাস (৪৫), রূপদিয়ার আব্দুর রহিম (৫৫), আশেন্দির মান্নান (৬০), জেনারেল হাসপাতালের মিহির (১০), রূদ্রপুরের মিলন (৩৫) এবং কেন্দ্রীয় কারাগারের আলিমুল (২২)। চৌগাছা উপজেলায় শনাক্ত হয়েছেন ভবানীপুরের আনিসুর রহমান (৩৫) নামে এক যুবক।

[৪] শার্শায় আছেন ভবানীপুরের আফসানারা বেগম (৪৩), বেনাপোলের ব্যাংককর্মী আব্দুর রহমান (৫৭), বেনাপোল কাস্টমসের রফিকুল ইসলাম (৫৩), নিজামপুরের হারুন অর রশীদ (৫৮), নামাজগ্রামের আলেয়া খাতুন (৪২) এবং কাজলপাকুরের মাছুরা খাতুন (৪৫)।

[৫]  ঝিকরগাছায় আক্রান্ত হয়েছেন কামাল হোসেন (৪০), ডাকবাংলো রোডের সিরাজুল ইসলাম, মোহিনীকাটির সুন্নত আলী, মনোহরপুরের মেজবাউর রহমান ও আকতারুজ্জামান (৪২) এবং কৃষ্ণনগরের শিশির সরকার (৫৬)।

[৬] মণিরামপুরে আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন, আমরুইহাটার আবদার (২৭), ব্রাহ্মণডাঙ্গার রেজওয়ান (২২), অভয়নগরের নওয়াপাড়ার সিদ্দিকুর রহমান (৬৫), যিনি মণিরামপুরে নমুনা দিয়েছিলেন এবং অসীমনগরের অসীম দত্ত (২৯)। কেশবপুর উপজেলায় শনাক্ত একমাত্র ব্যক্তি হলেন রামদুলাল সাহা (৮৭)। সম্পাদনা : হ্যাপি

সর্বাধিক পঠিত