প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চীনের করোনা ভাইরাস নিয়ে বাংলাদেশে আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ

জেরিন: চীন থেকে বিশ্বের কয়েকটি দেশে ছড়িয়ে পড়া নতুন ধরনের করোনা ভাইরাসের বিষয়ে সতর্ক রয়েছে বাংলাদেশও। পাশপাশি গত কয়েকদিনে চীন থেকে আসা বিভিন্ন ফ্লাইটের ৯০০ যাত্রীকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে স্ক্রিনিং করা হলেও এ ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী পাওয়া যায়নি।

বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের ডিজিজ কন্ট্রোলরুম (সিডিসি) আয়োজিত ‘২০১৯ এন কভ ভাইরাস আউটব্রেক’ সম্পর্কে অবহিতকরণ সভা ও সংবাদ সম্মেলনে সিডিসি পরিচালক অধ্যাপক ডা. সানিয়া তহমিনা এ তথ্য জানান।

চীনের উহান শহরের একটি মাছের বাজার থেকে এ ভাইরাসটি ছড়িয়েছে। নিউমোনিয়া-সদৃশ এ ভাইরাসটি নতুন এক ধরনের করোনা ভাইরাস। নোবেল করোনা ভাইরাস, উহান করোনা ভাইরাস, উহান ফ্লু, উহান সি ফুড মার্কেট নিউমোনিয়া ভাইরাস ও উহান নিউমোনিয়া নামে বিশ্বব্যাপী পরিচিত হয়েছে ভাইরাসটি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা একে বলছে 2019-nCoV।

আইইডিসিআরের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরো বলেন, চীনের সাথে বাংলাদেশের বাণিজ্য ও পর্যটকদের নিয়মিত যাতায়াত থাকায় নোবেল করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি রয়েছে। তবে পরিস্থিতি মোকাবিলায় স্বাস্থ্য অধিদফতরের সার্বিক প্রস্তুতি রয়েছে। আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই।

তিনি জানান, দেশে কোনো রোগী পাওয়া গেলে তাদের আলাদা করে রেখে চিকিৎসা নিশ্চিত করতে সরকারি কুর্মিটোলা হাসপাতালে পৃথক ওয়ার্ড প্রস্তুত রাখা হয়েছে। পরীক্ষানিরীক্ষার জন্য রি এজেন্টও আছে। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নমুনা পরীক্ষার ফল পাওয়া যাবে।

এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চীনে এখন পর্যন্ত ১৭ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। চীন ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র, মেক্সিকো, কলোম্বিয়া, যুক্তরাজ্য ও অষ্ট্রেলিয়ায় এ ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

সর্বাধিক পঠিত