শিরোনাম
◈ মার্কিন পাইলটের মৃত্যু, ইউনাইটেড হাসপাতালের অবহেলাকে দায়ী করেছেন বোন  ◈ ২ ফেব্রুয়ারি দেশের প্রথম পাতাল মেট্রো রেলের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী  ◈ দৈনিক সমকাল পত্রিকার বিরুদ্ধে প্রেস কাউন্সিলে ঢাকা ওয়াসার মামলা ◈ সরকার ইসলামের বিরুদ্ধে কিছু করেনি, করবেও না: শিক্ষামন্ত্রী ◈ পেশোয়ারের মসজিদে শক্তিশালী বিস্ফোরণে নিহত ২৮, আহত ১৫০ ◈ জমজমের পানি বিক্রি বন্ধের নির্দেশ ভোক্তা অধিদপ্তরের ◈ ডান্ডাবেড়ি পরানো নিয়ে নীতিমালা প্রণয়নে হাইকোর্টের রুল ◈ চৌগাছার সাবেক পুলিশ কর্মকর্তার কারাদণ্ড ◈ অনির্বাচিত লোক দিয়ে কখনো দেশের উন্নতি হয় না:  প্রধানমন্ত্রী   ◈ ১১ উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত : ৩০ নভেম্বর, ২০২২, ০৭:২২ বিকাল
আপডেট : ৩০ নভেম্বর, ২০২২, ০৭:২২ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদের হিসাবরক্ষকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

সোহাগ হাসান, সিরাজগঞ্জ : সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদ অফিসের হিসাব রক্ষক সুরুজিৎ কুমার মুজুদার (৪২) এর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার সকালে সিরাজগঞ্জ শহরের জেলা পরিষদের ডাক বাংলো থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

সুরুজিৎ কুমার মুজুদার পাবনা পৌর এলাকার সুধির চন্দ্র মুজুমদারের ছেলে ও সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদ অফিসের হিসাব রক্ষক।

সিরাজগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (অপারেশন) সুমন কুমার দাস জানান, সকাল সাড়ে নয়টায় দিকে ঘরের ভেতরে ঝুলন্ত মরদেহ দেখে ডাক বাংলোর কেয়ারটেকার শাহন মিয়া পুলিশকে খবর দেয়। আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করি। নিহত সুরুজিৎ কুমার মুজুদারের গলায় আঘাতের চিহৃ ছিল বলে তিনি জানান। এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে বলে তিনি জানান।

এদিকে ঘটনার পর থেকে জেলা পরিষদের নির্বাহী প্রকৌশলী কামরুন নাহার ডাক বাংলো প্রধান গেট বন্ধ রেখেছিলো। সাংবাদিকদের তথ্য সংগ্রহের জন্য নানা বাধা সৃষ্টি করেছে। তিনি সাংবাদিকদের তথ্য দিতে বাঁধা প্রদান করেন এবং সাংবাদিকের সাথে খারাপ আচারণ করেন।

এক পর্যায়ে সাংবাদিকদের সাথে জেলা পরিষদের নির্বাহী প্রকৌশলী কামরুন নাহারের কথা কাটাকাটির পরে তিনি সাংবাদিকদের নিয়ে নানা বাজে মন্তব্য করেন। এসময় ঘটনাস্থলে পুলিশ, পিবিআই ও ডিএসপির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

পরে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাবেক মন্ত্রী আলহাজ্ব আব্দুল লতিফ বিশ্বাস ঘটনাস্থলে আসলে তিনি সাংবাদিকদের তথ্য সংগ্রহের সহযোগিতা করেন।

জেলা পরিষদের নির্বাহী প্রকৌশলী কামরুন নাহার বলেন, আপনারা পরে আসে। পুলিশের অনুমোতি নিয়ে আসে। আপনার এই আলামত নষ্ট করার জন্য এখানে আসেছেন। ফুটেজ প্রয়োজন হলে পুলিশের নিকট থেকে নেন। ঘরের ভেতরে ঢুকতে পারবেন না। এই বলে তিনি সাংবাদিকদের উপর চরাও হন এবং সাংবাদিকদের নিয়ে খারাপ মন্তব্য করেন।

এ বিষয়ে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাবেক মন্ত্রী আলহাজ্ব আব্দুল লতিফ বিশ্বাস বলেন, এটা একটা অনাঙ্কাখিত ঘটনা। জেলা পরিষদ ডাক বাংলোতে এই ধরণের ঘটনা কোন দিন ঘটে নাই। প্রশাসনের লোকজন এসেছে তার তদন্ত করে বিষয়টি দেখছে। জেলা পরিষদের নির্বাহী প্রকৌশলী কামরুন নাহার সাংবাদিকদের সাথে দূর্ব্যবহার সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমার সামনেই তিনি এই সব কথা বলছেন। সাংবাদিকদের সাথে এমন ব্যবহার করা ঠিক হয়নি বলে তিনি জানান।

সাংবাদিকদের সাথে খারাপ আচারণের কারণে সিরাজগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি হেলাল আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক জাকিরুল ইসলাম সান্টুর নেতৃত্বে জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহাম্মদ এর নিকট কামরুন নাহারের বিরুদ্ধে মৌখিক অভিযোগ করেন। পরে সাংবাদিকরা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে কামরুন নাহারের অপসারণের দাবীতে মানববন্ধন করেন।

জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহাম্মদ বলেন, এর আগেই তার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ পেয়েছিলাম। আপনাদের বিষয়ে আমি মন্ত্রণালয় বরাবর তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সুপারিশ করবো।

প্রতিনিধি/জেএ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়