প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিশ্বকাপে মাশরাফির বিদায়ী ম্যাচে জয় উপহার দিতে চান সাকিব-তামিমরা

স্পোর্টস ডেস্ক : শুক্রবার বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে তিনটায় মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ-পাকিস্তান। তার আগে বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে যোগ দিয়েছিলেন বাংলাদেশ কোচ স্টিভ রোডস। তিনি জানিয়েছেন, বিশ্বকাপে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার শেষ ম্যাচে জয় উপহার দিতে চায় তার দল।

রোডস বলেন, আমি সব সময় বলি দলের বাকি সদস্যরা মাশরাফিকে অনেক শ্রদ্ধা করেন। আমি অনেক সময় তাতে যোদ্ধা হিসেবেই উল্লেখ করি। নিজের দলের জন্য যুদ্ধ করতেই মাঠে নামেন। আর এই কারণেই লোকে তাকে আলাদা মর্যাদা দিয়েছে। তাকে ভালোবেসেছে, সম্মান দিয়েছে। ড্রেসিং রুমেও মাশরাফির জন্য রয়েছে ভালোবাসা। এটা তার শেষ বিশ্বকাপ। অবশ্যই তিনি আবেগ-আপ্লূত।

২০০১ সালে অভিষেকের পর টাইগারদের হয়ে চারটি বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছেন মাশরাফি। ২০০৩, ২০০৭ সালে দলের হয়ে খেললেও ২০১১ সালে ইনজুরির কারণে ছিটকে পড়েন। ২০১৪ সালের দলের দায়িত্ব নেয়ার পর বাংলাদেশের ইতিহাসের সেরা অধিনায়ক হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করেন। ২০১৫ সালে তার অধীনেই প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে জয় পায় টাইগাররা। ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন ট্রফিতে সেমি-ফাইনালে অংশ নেয় দলটি। যদিও চলতি বিশ্বকাপটা ভালো কাটেনি ডান-হাতি এই পেসারের। ৭ ম্যাচে দল তিনটিতে জয় পেলেও মাশরাফি মাত্র ১ টি উইকেট পেয়েছেন।

স্টিভ রোডস বলেন, আসুন ম্যাশের বর্তমান অবস্থা আমরা বোঝার চেষ্টা করি। তার শেষ বিশ্বকাপ ম্যাচে তার প্রাপ্যটুকু বুঝিয়ে দেই। আশাকরি দলের অন্যরাও শেষ ম্যাচে জয় উপহার দিবে।

পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশ ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিলেই শেষ হয়ে যাবে সব হিসেব-নিকেশ। অন্যদিকে সরফরাজ নেতৃত্বাধীন দলটির বিপক্ষে প্রথমে ফিল্ডিং করলে টাইগারদের হারতে হবে ৩০০ রানে, যা কাগজে কলমে অসম্ভব বলাই চলে।

পাকিস্তানের বিপক্ষে টস নিয়ে প্রশ্ন রেখেছিল সাংবাদিকরা। রোডস জানিয়েছেন, টস নয় আপাতত জয় নিয়েই ভাবছে তার শিষ্যরা।

টাইগার কোচ বলেন, এ বিষয়ে আমি আপনাদের বেশি কিছু জানাতে চাই না। শুধু বলতে চাই, টস জেতার পর ব্যাটিং নাকি ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়া হবে সেটা নির্ভর করবে বাংলাদেশ দলের জয়ের সেরা সুযোগের ওপর।

বৃহস্পতিবারর লন্ডনে অনুশীলনের সময় কনুইতে চোট পান মুশফিকুর রহিম। যদিও এই চোটকে গুরুতর বলতে নারাজ রোডস।

বাংলাদেশ কোচ বললেন, আমার মনে হয় চোট নিয়ে চিন্তার কোনও কারণ নেই। তিনি ফিজিওর তত্বাবধায়নে রয়েছেন। আশাকরি ম্যাচের আগে দ্রুতই সের উঠবেন তিনি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত