শিরোনাম
◈ শান্তি-শৃঙ্খলা ফেরাতে আইনশৃঙ্খলা  বাহিনীকে কঠোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ◈ সরকার আলোচনার কোনো পরিস্থিতি রাখেনি, কর্মসূচী অব্যাহত রাখার ঘোষণা: বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন ◈ বিটিভিতে হামলা-আগুন, সম্প্রচার বন্ধ ◈ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ◈ আমরা ধৈর্যের পরীক্ষা দিচ্ছি, এটা দুর্বলতা নয়: ডিবিপ্রধান ◈ নরসিংদীতে গুলিতে নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থীর মৃত্যু, আহত শতাধিক ◈ চট্টগ্রামে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ২ ◈ নেত্রকোনায় ইউএনও, অতিরিক্ত পুলিশ সুপারসহ আহত অর্ধশত, ৭ আন্দোলনকারী গুলিবিদ্ধ ◈ শান্তিপূর্ণ সমাধানের দিকে এগোতে চায় সরকার: তথ্য প্রতিমন্ত্রী ◈ শিক্ষার্থীদের পরিবর্তে বিএনপি-জামাত আগুন-সন্ত্রাস নিয়ে মাঠে নেমেছে: ওবায়দুল কাদের   

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ, ২০২৩, ০৪:৪৩ দুপুর
আপডেট : ২৩ মার্চ, ২০২৩, ০৪:৪৩ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

দাম্পত্য কলহে শিশুকে হত্যার পর মাটিচাপা

তাহারুল মিয়া

রফিকুল ইসলাম মিঠু: গাজীপুরে দাম্পত্য কলহের জেরে ছয় বছরের শিশুকে হত্যার পর মাটিচাপা দেওয়ার ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) দুপুরে গাজীপুর মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান উপ-কমিশনার (ডিবি এবং মিডিয়া) মোহাম্মদ ইব্রাহিম খান।

গ্রেপ্তার তাহারুল মিয়া রংপুরের পীরগঞ্জ থানার জামালপুর গ্রামের ইয়াসিন আলীর ছেলে।

উপ-কমিশনার বলেন, গত ১৫ মার্চ বিকেলে ইসলামপুর এলাকায় স্থানীয় কবির হোসেনের সদ্য মাটি ভরাট করা ফাঁকা জমিতে মাটিচাপা অবস্থায় ৬ বছরের শিশু সাখাওয়াত হোসেনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরে খবর পেয়ে শিশুর বাবা জাফর আলী ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুটি তার ছেলে বলে শনাক্ত করেন। এ ব্যাপারে বাসন থানায় শিশুটির বাবা বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলার পর পুলিশ সিসিটিভির ফুটেজ বিশ্লেষণ ও তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় বুধবার গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ থেকে হত্যায় অভিযুক্ত তাহারুল মিয়াকে গ্রেপ্তার করে।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে আসামি তাহারুল জানান, নিহত শিশুর চাচাতো বোন শারমিনের সঙ্গে দুই বছর আগে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাহারুল স্ত্রীকে নিয়ে গাজীপুর মহানগরীর ১৫নং ওয়ার্ডে ভোগড়া পেয়ারা বাগান এলাকায় ওই শিশুর পরিবারের সঙ্গে একই বাড়িতে ভাড়ায় বসবাস করতেন। স্ত্রীর সঙ্গে দাম্পত্য কলহ ও সাখাওয়াতের মায়ের বকাঝকার কারণে আক্রোশে তিনি গত ১৩ মার্চ বিকেলে শিশুটিকে অপহরণ করে ইসলামপুর এলাকায় নিয়ে যান। সেখানে রাত ৮টার দিকে পরণের লুঙ্গি দিয়ে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর মাটিচাপা দিয়ে চলে যান।

অনেক খোঁজাখুঁজির পরও স্বজনরা তাকে না পেয়ে পরদিন থানায় নিখোঁজ ডায়রি করেন। ১৫ মার্চ বাসন থানার পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

আরআইএম/এসএ 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়