প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রিকশা চালিয়ে দুই পু‌লিশের রোমাঞ্চকর অ‌ভিযানে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে গ্রেপ্তার

রাজু চৌধুরী: [২] সিএমপি'র কোতোয়ালী থানার তিন জন চৌকস এএসআই রনেশ বড়ুয়া, নুরুন নবী ও সাইফুল ইসলাম, রিক্সাচালক ও যাত্রী বেশে ছদ্মবেশী রূপে তিন বছর আগের ৫ বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে।

[৩] মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) কোতোয়ালী থানা সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাত সাড়ে ৯ টার দিকে পতেঙ্গা থানার কাটগড় এলাকা থেকে সাজাপ্রাপ্ত আসামি আবু বক্কর সিদ্দিক মামুনকে গ্রেপ্তার করেছে সেই 'রিকশা চালকের' টিম।

[৪] এই ব্যাপারে কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, '২০১১ সালে বাকলিয়া থানার একটি মাদক মামলায় গ্রেপ্তার হন কোতোয়ালী থানার ঘাটফরহাদবেগ এলাকার আবু বক্কর সিদ্দিক মামুন। ২০১৭ সালে বিচারে তার ৫ বছরের সাজা হয়। কিন্তু সে নিজ বাড়িতেও নেই, অনেক দিন ধরে লাপাত্তা।

 

[৫] আমরাও পিছু ছাড়িনি, নতুন করে গোপন তথ্য পাওয়ার পর তাকে আটক করতে একটি টিম রেডি করি, এএসআই সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের টিমকে ছদ্মবেশে কৌশলে তাকে গ্রেপ্তার করতে বলি। ওসি মহসীন বলেন, গত তিন দিন আগে থেকে সম্ভাব্য সব স্থানে অভিযান চালিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি। অবশেষে কৌশল পরিবর্তন করে রিকশা চালকের বেশে তাকে কাটগড় থেকে গ্রেপ্তারে সক্ষম হয় টিম কোতোয়ালী।

[৬] এএসআই সাইফুল ইসলাম বলেন, 'তাকে গ্রেপ্তারে বারবার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হচ্ছিলাম। তার কল রেকর্ড, ছবি সংগ্রহের পরও সে বার বার হাতের নাগালের বাইরে চলে যায়। পরে খবর পেয়ে পতেঙ্গার কাটগড় এলাকায় সে যেখানে ভাড়া বাসা নিয়েছে সেখানে তিনজন রিকশা চালক আর যাত্রীর বেশে সোমবার দুপুর থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত সেখানে অবস্থান নেন।

[৭] এরমধ্যে স্বাভাবিক যাত্রী চালকের মতই ভাড়া আদান প্রদান করেন। খুব সাবধানে অভিনয়টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন বলে জানান, এ এস আই সাইফুল, তিনি বলেন কেউ যেন আমাদের সন্দেহ না করে সেজন্য খুবই সতর্ক ছিলাম। পরে রিকশার পাশ দিয়েই হেটে যাবার সময় বাসার কাছ থেকেই ৫ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামি আবু বক্করকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হন বলে জানান সাইফুল। সম্পাদনা: সাদেক আলী

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত