প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘কাঠ গোলাপ’এ বাপ্পীরাজ ও বিপাশা

আবু সুফিয়ান রতন : শুভ্র প্রফেশনাল ভাবে সৌখিন কিছু লোকদের বাসায় সকাল বেলা ফুল হোম ডেলিভারি দেয়। ঠিক তেমনি মারিয়াদের বাসায় ও ফুল ডিলিভারি দেয় সে। প্রথম দিন যখন শুভ্র মারিয়াদের বাসায় ফুল দেয় তখন শুভ্রের হাতের স্পর্শ তাকে ভিন্ন অনুভূতি দেয়। এইভাবে প্রতিদিন শুভ্র ফুল দিতে থাকে আর মারিয়া শুভ্রের প্রতি দুর্বল হতে থাকে। একসময় দৃষ্টিহীন মারিয়ার তীব্র ইচ্ছে তৈরি হয় শুভ্রকে দেখার। কিন্তু সে ইচ্ছে বাস্তবে রূপ নেবে কীভাবে? এমনই গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘কাঠ গোলাপ’।

এই স্বল্পদৈর্ঘ্যে প্রথমবার জুটিবেঁধে কাজ করলেন বাপ্পীরাজ ও বিপাশা কবির। চলচ্চিত্রটি গল্প চিত্রনাট্য ও নির্মাণ করেছেন রুবেল আনুশ। এই স্বল্পদৈর্ঘ্যে শুভ্র চরিত্রে বাপ্পীরাজ ও মারিয়া চরিত্রে বিপাশা।

পরিচালক রুবেল আনুশ বলেন, দারুণ একটা কাজ হলো। আর এই স্বল্পদৈর্ঘ্যে শুধু একটি প্রেমের গল্পই বলা হয়নি, প্রতিটি দৃশ্যে বলা হয়েছে আমাদের চোখ এড়িয়ে যাওয়া গল্পগুলোকে। বাপ্পীরাজ ভালো অভিনেতা। সে তার জায়গা থেকে বেরিয়ে এসে এখানে ক্যারিশমা দেখিয়েছে। সেটা ছবিটি মুক্তি পেলেই বুঝতে পারবেন। আর বিপাশাকেও পরিচিতি গণ্ডির বাইরে নিয়ে এসেছি- সব মিলিয়ে আমি অপেক্ষা করতে বলবো।

বাপ্পীরাজ বলেন, রুবেল আনুশ ভাইয়ের পরিচালনায় অনেক সুন্দর একটি কাজ করেছি। এই কাজটার গভীরে চলে গিয়েছিলাম। মনে হচ্ছিল না যে ক্যামেরার সামনে কাজ করছি। হৃদয় বিদারক একটি কাজ কাঠ গোলাপ। বিপাশা কবির বলেন, দুর্দান্ত একটি কাজ হয়েছে। আর এই প্রথম আমি কোন স্বল্পদৈর্ঘ্যে কাজ করলাম। আমি মনে করি গল্পটাও অনেক সুন্দর ছিল। এখানে বাপ্পি রাজের সাথে কাজ করে ভাল লেগেছে। সে সহ শিল্পী হিসাবে যথেষ্ঠ হেল্পফুল এবং সে অনেক সুন্দর কাজ করেন।

বিপাশা বলেন, রুবেল আনুশ ভাইয়ের পরিচালনায় এর আগে আমার কোন কাজ করা হয়নি। তবে এই কাজটি করে আমি মুগ্ধ। তিনি ভালো কাজ করেন।আশা করছি কাজটি সবাইর ভাল লাগবে। তিনি আরও বলেন, আমার সাথে ভাইয়ের নতুন একটি সিনেমার কাজ হওয়ার কথা চলছে। শিগ্রই এটার ঘোষনা আসতে পারে জানা গেছে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘কাঠ গোলাপ শিগ্রই যে কোন একটি অনলাইন প্ল্যাটফরমে মুক্তি দেওয়া হবে ।