প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভারতে শিশু ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড, অর্ডিন্যান্সে রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষর

ভারতে শিশু ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড। শনিবার এ শাস্তির বিষয়ে মন্ত্রী পরিষদ বিল পাস করার পর প্রেসিডেন্ট রাম নাথ কোভিন্দ এই অর্ডিন্যান্সে স্বাক্ষর করেছেন রোববার। এ খবর দিয়েছে অনলাইন জি নিউজ।

এতে বলা হয়েছে, যদি ১২ বছর বয়স পর্যন্ত কোনো শিশুকে কেউ ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত হয় তাহলে এ অর্ডিন্যান্সের অধীনে তাকে দেয়া হবে মৃত্যুদণ্ড। এ বিধান কার্যকর হবে রোববার থেকেই। শনিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে মন্ত্রীপরিষদের এক বৈঠক বসে। সেই বৈঠকে এই অর্ডিন্যান্স পাস হয়। যদি ১৬ বছরের নিচে বয়সের কোনো বালিকাকে ধর্ষণের জন্য কেউ দোষী সাব্যস্ত হয় তাহলে তার সর্বনিম্ন শাস্তি ১০ বছর থেকে বাড়িয়ে ২০ বছর করার কথা বলা হয়েছে। যা বর্ধিত করে যাবজ্জীবন কারাদ-ে পরিণত করা যাবে। ১২ বছর বয়সের নিচের কোনো বালিকাকে ধর্ষণে অভিযুক্ত হলে ধর্ষকের সর্বনিন্ম জেল ২০ বছর করার কথা বলা হয়েছে ওই অর্ডিন্যান্সে। এ ছাড়া তদন্ত ও বিচার প্রক্রিয়া দ্রুতগতিতে করার তাগিদ দেয়া হয়েছে। সম্প্রতি একটি ধর্ষণ মামলা নিয়ে ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। তার পরেই এমন অর্ডিন্যান্স জারি হলো ভারতে।

এর আগে যৌন সহিংসতা থেকে শিশুকে সুরক্ষা বিষয়ক আইনের অধীনে একজন ধর্ষক বা যৌন নিপীড়নকারীর সর্বোচ্চ শাস্তি ছিল যাবজ্জীবন কারাদ-। আর সর্বনিম্ন শাস্তি ছিল ৭ বছরের জেল। এসব আইন পরিবর্তনের কথা শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টকে অবহিত করে ভারত সরকার। তারা জানায়, ধর্ষণ সংক্রান্ত আইন সংশোধন করতে যাচ্ছে সরকার। তাতে ধর্ষকের জন্য মৃত্যুদণ্ড রাখা হচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত