শিরোনাম
◈ আজ স্বল্প দূরত্বের কিছু যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল করবে: রেলওয়ে ◈ নাশকতাকারীদের ছাড় না দিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে জ্যেষ্ঠ সাংবাদিকদের দাবি ◈ কোটা আন্দোলনের তিন সমন্বয়কের সন্ধান মিলেছে ◈ জনমনে স্বস্তি ফিরে এলেই কারফিউ প্রত্যাহার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ যে কোন সহিংস ঘটনার নিন্দা করে যুক্তরাষ্ট্র: ম্যাথু মিলার ◈ দুষ্কৃতিদের বিষয়ে তথ্য দিয়ে সহযোগিতার অনুরোধ পুলিশের ◈ ঢাকার বাইরের কারফিউ পরিস্থিতি ◈ দুষ্কৃতকারীরা যেখানেই থাকুক তাদের আইনের আওতায় আনা হবে: আইজিপি ◈ ১৮ থেকে ২০ জুলাই তিন দিনে ৯৯৯-এ সোয়া লাখ ফোন কল ◈ কতজন শিক্ষার্থী মারা গেছেন, জানতে সময় লাগবে: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত : ১০ জুলাই, ২০২৪, ১০:৪৭ রাত
আপডেট : ১১ জুলাই, ২০২৪, ১০:৪৭ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

টেকসই ১০ ব্যাংকের তালিকা প্রকাশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের

মনজুর এ আজিজ: [২] টেকসই উন্নয়ন ও অভীষ্ট লক্ষ্য অর্জনের জন্য বেসরকারি খাতের ১০ ব্যাংক নিয়ে ‘সাসটেইনেবল রেটিং’ প্রকাশ করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এই তালিকায় ৩টি আর্থিক প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এবারের তালিকাটি করা হয়েছে ২০২৩ সালের তথ্যের ভিত্তিতে। এবারের টেকসই ১০ ব্যাংকের তালিকায় রয়েছে- ব্র্যাক ব্যাংক, দি সিটি ব্যাংক, ইস্টার্ণ ব্যাংক লিমিটেড (ইবিএল), এক্সিম ব্যাংক, যমুনা ব্যাংক, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক, ট্রাস্ট ব্যাংক, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক ও উত্তরা ব্যাংক। ৩টি আর্থিক প্রতিষ্ঠান হলো- আইডিএলসি ফাইন্যান্স, আইপিডিসি ফাইন্যান্স ও ইউনাইটেড ফাইন্যান্স।

[৩] মূলত পাঁচটি সূচকের ওপর ভিত্তি করে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর টেকসই রেটিং বা মান যাচাই করা হয়েছে। সূচকগুলো হলো- টেকসই অর্থায়ন, সামাজিক দায়বদ্ধতা কার্যক্রম, পরিবেশবান্ধব প্রকল্পে অর্থায়ন, টেকসই কোর ব্যাংকিং সূচক ও ব্যাংকিং সেবার পরিধি।

[৪] টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জনের লক্ষ্যে কয়েক বছর ধরে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো পরিবেশবান্ধব প্রকল্পে ঋণ প্রদান বা অর্থায়ন ও সামাজিক দায়বদ্ধতা পরিপালনসহ নানা কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। যেমন অনেক ব্যাংক এখন সৌরবিদ্যুতের ব্যবহার করছে, গাছ কাটা কমাতে কাগজের ব্যবহার কমিয়েছে এবং অফিসে বিদ্যুতের ব্যবহার কমাতে নানা উদ্যোগ নিয়েছে।

[৫] প্রতি বছর বাংলাদেশ ব্যাংকের সাসটেইনেবল ফাইন্যান্স বিভাগ সম্প্রতি টেকসই ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিয়ে এই তালিকা প্রকাশ করে। এবারও ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর নাম সাজানো হয়েছে আদ্যক্ষরের ভিত্তিতে। এ কারণে মানের দিক থেকে কোন ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান এগিয়ে আছে বা কোনটি পিছিয়েছে, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

[৬] অবশ্য বাণিজ্যিক ব্যাংকের কর্মকর্তারা বলছেন, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এই মান যাচাইয়ের ক্ষেত্রে একটি ব্যাংকের প্রকৃত আর্থিক চিত্র প্রকাশ পায় না। ফলে কোন ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান সেরা, এর মাধ্যমে তা বলা যাবে না।

[৭] ২০২২ সালের তথ্যের ভিত্তিতে তৈরি গত বছরের তালিকায় ৭ ব্যাংক ও চার আর্থিক প্রতিষ্ঠান স্থান পায়। তখন ব্যাংকগুলোর মধ্যে ছিল ব্র্যাক ব্যাংক, যমুনা ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক, শাহ্জালাল ইসলামী ব্যাংক, দি সিটি ব্যাংক, ট্রাস্ট ব্যাংক ও ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক (ইউসিবি)। আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ছিল অগ্রণী এসএমই ফাইন্যান্সিং কোম্পানি, বাংলাদেশ ফাইন্যান্স, আইডিএলসি ফাইন্যান্স ও লংকান অ্যালায়েন্স ফাইন্যান্স।

[৮] ২০২১ সালের তথ্যের ভিত্তিতে প্রকাশিত ২০২২ সালের টেকসই মানের তালিকায় ছিল ১০ ব্যাংক ও ৫ আর্থিক প্রতিষ্ঠান। সেবার তালিকায় ছিল ব্যাংক এশিয়া, ব্র্যাক ব্যাংক, ডাচ্-বাংলা ব্যাংক, ইস্টার্ণ ব্যাংক লিমিটেড (ইবিএল), এক্সিম ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ, এনআরবি ব্যাংক, পূবালী ব্যাংক, সাউথইস্ট ব্যাংক ও সিটি ব্যাংক। আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ছিল অগ্রণী, এসএমই ফাইন্যান্স, বাংলাদেশ ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট, বিআইএফএফএল, আইডিএলসি ফাইন্যান্স ও আইপিডিসি ফাইন্যান্স।

[৯] কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কর্মকর্তারা বলছেন, ব্যাংকগুলোর ঋণের মান, মূলধন পরিস্থিতি, এজেন্ট ব্যাংকিং কার্যক্রমকেও বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। এ কারণে নতুন অনেক ব্যাংক যুক্ত হয়েছে, আবার কতগুলো বাদ পড়েছে। সম্পাদনা: কামরুজ্জামান

এসবি২

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়