শিরোনাম
◈ বিএনপিতে শুদ্ধি অভিযান শুরু, সরকারের সঙ্গে আঁতাতের অভিযোগে ফেঁসে যাচ্ছেন শতাধিক নেতা  ◈ তুরস্কে কন্ট্রাক্ট ফার্মিংয়ে বাংলাদেশি কৃষিবিদ ও কৃষক নিয়োগের প্রস্তাব  ◈ ফুটপাত থে‌কে জ্বলন্ত চুলা ও সিলিন্ডার সরা‌লো পু‌লিশ, আটক ৮  ◈ প্রধানমন্ত্রীকে বড়পীর আব্দুল কাদের জিলানীর (র.) মাজার জিয়ারতের আমন্ত্রণ ◈ রাজধানীজুড়ে রেস্তোরাঁয় পুলিশি অভিযান, আটক ৩৫ ◈ প্রবাসী আয়ে চমক, ৮ মাসে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স ফেব্রুয়ারিতে ◈ রমজানে সৌদি আরবে মাইক ব্যবহার ও সম্প্রচার সীমিত করে ৯ দফা নির্দেশনা ◈ পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ ◈ বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ড হাইকোর্টে রিট দায়ের ◈ গাজায় মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ বন্ধে ঐক্যবদ্ধ উদ্যোগের আহবান বাংলাদেশের

প্রকাশিত : ৩০ নভেম্বর, ২০২৩, ১১:০২ রাত
আপডেট : ৩০ নভেম্বর, ২০২৩, ১১:০২ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বরগুনায় পর্ণগ্রাফী মামলায় যুবকের ২ বছর সশ্রম কারাদন্ড

সাগর আকন, বরগুনা: [২] নারীর একান্ত ব্যক্তিগত ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার অপরাধ সন্দেহাতীত ভাবে প্রমানিত হলে সাইফুল ইসলাম সজল নামের এক যুবককে দুই বছর সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছে আদালত। বৃহস্পতিবার বরগুনার অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো: হারুন অর রশিদ এ রায় ঘোষনা করেন।

[৩] দন্ডপ্রাপ্ত আসামী সাইফুল ইসলাম সজল (২২) তিনি বরগুনা সদর উপজেলার এম বালিয়াতলী ইউনিয়নের নলী মাইঠা গ্রামের মো: খলিলুর রাহমানের ছেলে। রায় ঘোষনার সময় আসামী আদালতে উপস্থিত ছিলেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, ওই আদালতের সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর উত্তম কুমার গুহ।

[৪] জানা যায়, আসামীর প্রতিবেশী বাদী ওই নারীর স্বামীর সঙ্গে দন্ডপ্রাপ্ত আসামীর ভালো সম্পর্ক থাকার কারনে প্রায় তার ঘরে আসামী আসতেন। কোন এক ফাঁকে আসামী ওই নারী ফোন না বলে নিয়ে যায়। ফোনে নারীর ব্যক্তিগত একান্ত কিছু ছবি ছিল। সেই ছবিগুলো আসামী সজল তার ফোনে নিয়ে যায়। পরে সজল নারীর ফোনটি ফেরৎ দেয়। আসামী নারীর ছবি দিয়ে অনিতা ইসলাম নামে একটি আইডি খুলেন। নারী সেই আইডির পাসওয়ার্ড চাইলে আসামী দেয়নি। কিছুদিন পরে নারীর স্বামীর সঙ্গে সজলের জমি নিয়ে বিরোধ হয়। তখন আসামী সজল ২০২১ সালের ২৭ জুন রাত অনুমান ১০টার সময় ওই আসামী নারীর একান্ত ব্যক্তিগত ছবিগুলো সামাজিক যোগাযোগ ফেসবুকে ছাড়িয়ে দেয়। নারী বরগুনা থানায় মামলা করে। 

[৫] নারী বলেন, আসামী আমার সরলতার সুযোগ নিয়ে আমার সামাজিক মানসিক ক্ষতি করেছে। আমার সংসার ভাঙার উপক্রম হয়েছিল। রায়ে আমি সন্তুষ্ট।

[৬] ওই আদালতের সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর উত্তম কুমার গুহ বলেন, রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ সন্তুষ্ট। আসামী কারাগারে থাকায় তার সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি। সম্পাদনা: এ আর শাকিল

প্রতিনিধি/এআরএস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়