প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মুসা কলিম মুকুল: দেশে কাবাডি, দাঁড়িয়াবান্ধা, বউচি খেলার মুক্তি চাই!

মুসা কলিম মুকুল
ভারতের ক্রিকেট দল পাকিস্তানের কাছে হেরে গেছে। এতে নাকি কাশ্মীরের কয়েকটি ছেলে হোয়াটসঅ্যাপে খুশি ভাব দেখিয়েছে। তাদের উচিত শিক্ষা দেওয়ার জন্য ছাত্রত্ব কেড়ে নেওয়া হয়েছে, হাজতে দেওয়া হয়েছে। যোগী আদিত্যজী তাদের রাষ্ট্রদ্রোহিতার দায়ে অভিযুক্ত করার হুমকি দিয়েছেন। আহারে রাষ্ট্র! তার আবার রাষ্ট্রদ্রোহিতা। আমি বাঙালি। আমি বাংলাদেশের ক্রিকেটের পতন কামনা করি। কেন করি? বাংলাদেশের প্রতি আমার এখনো কিছু ভালোবাসা রয়ে গেছে বলে। মিরপুরের ক্রিকেট খেলা সারা বাংলার খেলাধুলাকে গিলে ফেলেছে। দুই কুড়ি খেলোয়াড়ের পেছনে হাজার কোটি টাকার পুঁজি কতো কায়দায় ঘুরে বেড়ায় আজকাল! তা নিয়ে কতো হইচই। পাড়ার ছেলেমেয়েরা যে খেলতে পায় না, তাদের স্বাস্থ্য যে চমকাচ্ছে, মনন বুড়িয়ে যাচ্ছে- সেদিকে খেয়াল করার সময় আছে কারও? দুদিন পর তারা মাদকাসক্তি, যৌনবিকার আর ধর্মীয় জঙ্গিবাদ- একসঙ্গে এই তিন রোগে ভুগতে থাকবে যে- সেদিকে খেয়াল করার সময় আছে কারও? বিজ্ঞাপনওয়ালারা যা খাওয়াবে তাই খেতে হবে?

আমার যদি কোনো শত্রæ দেশ থাকতো তবে তাদের অভিশাপ দিতাম, তাদের দেশে ক্রিকেট খেলা নিয়ে বাংলাদেশের মতো মাতলামি হোক, আঁতলামি হোক। না, শত্রæরও অতটা অমঙ্গল কামনা করা উচিত নয়। আমি এখনো বাংলাদেশ ভালোবাসি। এ দেশে কাবাডি, দাঁড়িয়াবান্ধা, বউচি খেলার মুক্তি চাই। ভাওয়াইয়া, বাউল, পালাগানের মুক্তি চাই। দেশদ্রোহিতার অভিযোগ আনতে চায় কেউ? আমি বাংলাদেশের ক্রিকেটের পতন কামনা করি। পুরো ভারতবর্ষেরও। Musa Kalim Mukul

সর্বাধিক পঠিত