প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] লকডাউনে রাজধানীতে যানজট!

মাসুদ আলম: [২] মঙ্গলবার রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে স্বাভাবিক সময়ের মতো মানুষকে চলতে দেখা গেছে। অন্যদিনের তুলনায় যানবাহনও ছিলো বেশি। সড়কে প্রতিটি সিগনালে ট্রাফিক পুলিশ সদস্যদের দেখা গেছে। প্রায় প্রতিটি সড়কেই যানজট লক্ষ্য করা গেছে। গণপরিবহন ছাড়া সবই চলছে।

[৩] সরজমিনে দেখা গেছে, স্বাস্থ্যবিধি বাস্তবায়নে বিধিনিষেধ শুরুর দিকে রাজধানীতে পুলিশের সক্রিয় কার্যক্রম লক্ষ্য করা গেলেও এখনকার চিত্র ভিন্ন। অধিকাংশ সড়কে চেকপোস্ট নেই। আবার চেকপোস্ট থাকলেও পুলিশের কার্যক্রম চোখে পড়েনি। চেকপোস্ট গুলোতে আগের মতো মুভমেন্ট পাস চেক করতে দেখা যায়নি। যে যারমতো চলাফেরা করছে। অধিকাংশ মানুষের মুখে মাস্ক নেই। আবার মাস্ক থাকলেও থুতনির নিচে। সড়কে গাড়ির চাপ বেশি থাকায় প্রতিটি সিগন্যালেই যানজটের মুখে পড়তে হয় সাধারণ মানুষকে। ব্যক্তিগত গাড়ি, মোটরসাইকেল, রিকশা ও সিএনজির দখলে রাজধানীর সড়ক। তবে সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগে পড়েন অফিসগামী মানুষ। গণপরিবহন বন্ধ থাকায় তাদের দ্বিগুন ভাড়া গুনতে হয়।

[৪] অফিসগামী মানুষ জানান, গণপরিবহন বন্ধ রেখে লকডাউন দিয়ে লাভ কি। বরং দুর্ভোগ বাড়ছে। ভাড়া দ্বিগুন গুনতে হচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে বেতনের একটা অংশ ভাড়ায় চলে যাবে।

[৫] পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, মার্কেট ও দোকানপাট খুলে দেওয়ায় সড়কে গাড়ির চাপ বেড়েছে। সিগনালের কারণে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। যারা জরুরি কাজে বেরিয়েছে তাদের ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে। যাদের সন্দেহ হচ্ছে তাদের থামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। যারা মুভমেন্ট পাস দেখাতে পারছেন না, তাদের আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। স্বাস্থ্যবিধি বাস্তবায়নে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত