প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

উইন্ডিজের সঙ্গে লড়াইটা সমান হবে বলেই মানছেন মাশরাফি

স্পোর্টস ডেস্ক : রাত পোহালেই দীর্ঘ ৬দিন পর বিশ্বকাপের ম্যাচ খেলতে নামবে বাংলাদেশ দল। চেনা প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে সোমবার বিকাল সাড়ে ৩টায় টনটনে অনুষ্ঠিত হবে ম্যাচটি। ম্যাচের আগে সমান লড়াইয়ের আভাস দিলেন টাইগার দলনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। কয়েকদিন আগেও যাদের বিরুদ্ধে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল জিতে শিরোপা স্বাদ নিয়েছে সেই ক্যারিবীয়দের কেমন মোকাবেলা করবে জানালেন ম্যাশ।

বিশ্বকাপে বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ একই মেরুতে দাঁড়িয়ে। ৪ ম্যাচে দুই দলের পয়েন্টই ৩। শেষ চারে যেতে প্রয়োজন কমপক্ষে ১১ পয়েন্ট। সেই লড়াইয়ে টিকে থাকতে আগামীকালের ম্যাচটি দুই দলের জন্যই বাঁচা মরার।

এমন সমীকরণের সামনে দাঁড়িয়ে লাল সবুজের ভক্তরা প্রিয় দলকে নিয়ে যখন আশা নিরাশার দোলাচলে, ঠিক তখন অভয় বানী শোনালেন দলপতি মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা। সমর্থকদের জন্য বললেন, লড়াইটা হবে সমানে সমানে। সেই লক্ষ্যে তারা সেরা খেলাটিই খেলবেন। টন্টনের ছোট আয়তনের মাঠে বিষ্ফোরক গেইল, লুইস, হেটমায়াররা জ্বলে উঠলে তামিম, সৌম্য, সাকিব, মুশফিকরা চেয়ে দেখবেন না বলে হুঁশিয়ারি দিলেন নড়াইল এক্সপ্রেস।

মাশরাফি জানালেন, ‘কয়েকটি ম্যাচ বাকি আছে। কিন্তু টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে আগামীকালের ম্যাচটি আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। যেহেতু আমরা আগের ম্যাচগুলোতে পয়েন্ট হারিয়েছি, সেহেতু কালকের ম্যাচটি গুরুত্বপূর্ণ। আমরা অফস্পিনার নিয়ে ওদের বিপক্ষে সফল হয়েছি। তো এটা নিয়ে আমাদের ভাবতে হবে। তবে এই মাঠটা ছোট। যেখানে ওদের পাওয়ার ব্যাটসম্যানেরা ভালো করবে। তবে আমরা মাঠ নিয়ে ভাবছি না। ছোট মাঠ আমাদের জন্যই ভালো। আমার মনে হয় লড়াইটা সমান সমান হবে এবং আমাদের ভালো খেলতে হবে।’

আর এই ক্ষেত্রে দলের যে প্লেয়ারটির প্রতি তিনি সবচাইতে বেশি আস্থা রাখছেন তিনি অফস্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজ। আয়ারল্যান্ডের ত্রিদেশীয় সিরিজের পর বিশ্বকাপেও যার ঘূর্ণিযাদু টাইগার গ্যালারির নীরবতা ভেঙেছে। ম্যাশ যোগ করেন, ‘আমার মনে হয় মেহেদি ওদের বিপক্ষে ভালো বল করেছে। সে খুবই ভালো করছে। ওদের ওপরের ৫ ব্যাটসম্যানই বাঁহাতি, যাদের বিপক্ষে সে ভালো করতে পারে। এটা একটা ভালো দিক।’

সোমবারের মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে নিশ্চয়ই সেই ভুলের পুনরাবৃত্তি হবে না। বাংলাদেশ সময় দুপুর সাড়ে তিনটায় মাঠে নামবে বাংলাদেশ-উইন্ডিজ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত