শিরোনাম
◈ রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে দেয়া হচ্ছে না: মির্জা ফখরুল ◈ নবনিযুক্ত সেনা প্রধানের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর ◈ বেগম খালেদা জিয়ার হৃদযন্ত্রে পেসমেকার বসানো হয়েছে  ◈ রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নবনিযুক্ত সেনাবাহিনী প্রধানের সৌজন্য সাক্ষাৎ ◈ গ্যাসের উৎপাদন বৃদ্ধির পরিকল্পনা ও বাজেটে বরাদ্দ কমানো স্ববিরোধী: সিপিডি ◈ সিলেটে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি, খুলছে পর্যটন কেন্দ্র ◈ পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের চিঠি স্বাধীন সাংবাদিকতার প্রতি হুমকি: বিজেসি  ◈ দেশের প্রতিটি অর্জনে নেতৃত্ব দিয়েছে আওয়ামী লীগ: প্রধানমন্ত্রী ◈ এনবিআর সদস্য মতিউরের বিরুদ্ধে তদন্তে দুদক ◈ সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব নিলেন জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান

প্রকাশিত : ২১ মে, ২০২৪, ০৬:৪৪ বিকাল
আপডেট : ২১ মে, ২০২৪, ০৬:৪৪ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

জুনের মধ্যে ঋণখেলাপিদের তালিকা প্রকাশ না হলে বাংলাদেশ ব্যাংক ঘেরাও করা হবে: সাকি

রিয়াদ হাসান: [২] গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকী বলেন, বাংলাদেশের সব সম্পদ আজ লুট হয়ে যাচ্ছে, ফোকলা হয়ে যাচ্ছে। যারা লুটপাট করছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিয়ে তোষণ করা হচ্ছে। কারা ব্যাংক লুট করছে, ঋণখেণাপি, অর্থপাচারকারীদের নাম আগামী ৩০ জুনের মধ্যে প্রকাশ করতে হবে। তাদের তালিকা প্রকাশ করা না হলে সমাবেশ করা হবে বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে।

[৩] মঙ্গলবার (২১ মে) বাংলাদেশ ব্যাংক সংলগ্ন সমাবেশে বক্তব্য প্রদানকালে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে ব্যাংক লুটেরা, ঋণখেলাপি ও অর্থপাচারকারীদের তালিকা প্রকাশের দাবিতে গণসংহতি আন্দোলনের বিক্ষোভ সমাবেশে বাধা দেয় পুলিশ। বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রধান ফটকের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ ডেকে শেষ পর্যন্ত শাপলা চত্বর সংলঘ্ন ফুটওভার ব্রিজের আগে সমাবেশ করেন দলটির নেতার। সমাবেশের আগে পুলিশের সঙ্গে নেতাকর্মীদের ধস্তাধস্তি হয়।

[৪] জোনায়েদ সাকী বলেন, কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, খেলাপি ঋণ এক লাখ ৫৬ হাজার কোটি টাকা। বাস্তবে খেলাপি ঋণ চার লাখ কোটি টাকার বেশি। আর প্রকৃত খেলাপি ঋণ আরও বেশি। এক ব্যাংকের পরিচালক আরেক ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে আর ফেরত দেয় না, কিন্তু তাদেরকে খোলাপিও দেখানো হয় না।

[৫] রিজার্ভ নিয়ে তিনি বলেন, সরকার ৪৮ বিলিয়ন ডলারের রিজার্ভ নিয়ে বড়াই করতো। এখন প্রকৃত রিজার্ভ নেমেছে ১৩ বিলিয়নে ডলারে। যারা রপ্তানি করে অর্থ ফেরত আনছেন না, তাদের তালিকা প্রকাশ করতে হবে। বিদ্যুতের বেলায় দেখা গেলো বসিয়ে বসিয়ে নিজেদের ভাই-ব্রাদারদের ক্যাপাসিটি চার্জ দেওয়া হচ্ছে। এখন এভাবে প্রতিটি খাতে লুটপাট করা হচ্ছে। অন্যদিকে জনগণের নাভিশ্বাস বইছে। ভোট ছাড়া যারা সরকারকে ক্ষমতায় রেখেছে তারা হাজার-হাজার কোটি টাকার মালিক হয়েছে, যার সেরা উদাহারণ পুলিশের সাবেক আইজিপি বেনজির আহমেদ।

[৬] সমাবেশে জোনায়েদ সাকি বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক একটি বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থার অধীনে পরিচালিত প্রতিষ্ঠান। এজন্য বাইরে থেকে এর নিরাপত্তা দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু বাংলাদেশ ব্যাংকের ভেতর থেকে লুটপাট ও অর্থ পাচার হয়ে যাচ্ছে। জনগণের টাকার নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত স্বশাসিত প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ব্যাংক আজ রাজনৈতিক নির্দেশনায় পরিচালিত প্রতিষ্ঠান হয়ে গেছে।

[৭] সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন গণসংহতি আন্দোলনের নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান রুবেল, রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য তাসলিমা আখতার, মনির উদ্দীন পাপ্পু, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য বাচ্চু ভূইয়া, জুলহাসনাইন বাবু, দীপক কুমার রায়, তরিকুল সুজন প্রমুখ।

[৮] এদিকে এদিন সমাবেশকে ঘিরে সকাল থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে নিরাপত্তা জোরদারের জন্য অতিরিক্ত পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছিল। সম্পাদনা: কামরুজ্জামান

এসবি২

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়