শিরোনাম
◈ শান্তি-শৃঙ্খলা ফেরাতে আইনশৃঙ্খলা  বাহিনীকে কঠোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ◈ সরকার আলোচনার কোনো পরিস্থিতি রাখেনি, কর্মসূচী অব্যাহত রাখার ঘোষণা: বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন ◈ বিটিভিতে হামলা-আগুন, সম্প্রচার বন্ধ ◈ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ◈ আমরা ধৈর্যের পরীক্ষা দিচ্ছি, এটা দুর্বলতা নয়: ডিবিপ্রধান ◈ নরসিংদীতে গুলিতে নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থীর মৃত্যু, আহত শতাধিক ◈ চট্টগ্রামে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ২ ◈ নেত্রকোনায় ইউএনও, অতিরিক্ত পুলিশ সুপারসহ আহত অর্ধশত, ৭ আন্দোলনকারী গুলিবিদ্ধ ◈ শান্তিপূর্ণ সমাধানের দিকে এগোতে চায় সরকার: তথ্য প্রতিমন্ত্রী ◈ শিক্ষার্থীদের পরিবর্তে বিএনপি-জামাত আগুন-সন্ত্রাস নিয়ে মাঠে নেমেছে: ওবায়দুল কাদের   

প্রকাশিত : ২০ মার্চ, ২০২৩, ০৮:৩৪ রাত
আপডেট : ২০ মার্চ, ২০২৩, ০৮:৩৪ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

মোবাইল-ফেসবুককে দায়ী করলেন বাবা

কদমতলীতে মায়ের সাথে অভিমানে মেয়ের আত্মহত্যা

আত্মহত্যা প্রতিকী

মোস্তাফিজুর রহমান: কদমতলীতে মায়ের সাথে অভিমান করে নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী এক মেয়ে আত্মহত্যা করেছে। তার নাম মোসা: সাজেদা নুর (১৪)। সে শ্যামপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় এর নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। সোমবার (২০ মার্চ) দুপুরে ঘটনাটি ঘটে।

বাবা মা বুঝতে পেরে ছিটকানি ভেঙ্গে ফ্যানের সাথে ওড়না ঝুলন্ত অবস্থা থেকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জরুরী বিভাগে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বিকাল চার টায় মৃত ঘোষণা করেন।

মৃতার বাবা জানান, ছেলে-মেয়ে একই স্কুলে পরে। স্কুল শেষে ৭ম শ্রেনী পড়ুয়া ছেলে সাজ্জাদ স্কুল শেষে বাসায় চলে আসে। মেয়ে সাজেদা ক্লাশ পরিক্ষা শেষে বাসায় না এসে নদীর পাড়ে বেড়াতে গিয়েছে। বিষয়টি তার মা'কে জানায় ছেলে। পরে মেয়ে আসার পর মা তাকে বকাঝকা দেয়। পরে মেয়ে আমার সাথে খাবার খেয়ে তার রুমে গিয়ে দরজা বন্ধ করে ফাঁস দেয়। প্রথমে বিষয়টি বুঝতে পারিনি। পরে ডাকাডাকি করে কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে, দরজার ছিটকানি ভেঙ্গে ভিতরে গিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পাই। সেখান থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসি।

তিনি বলেন, সামান্য শাসনে যদি সন্তানরা এমন ঘটনা ঘটিয়ে ফেলে, তবে কি করার। তাকে তো চরও মারেনি। এ-সব এর জন্য মোবাইল-ফেসবুক ই দ্বায়ী। এখান থেকেই ছেলে-মেয়েরা সব শিখে।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক মোঃ বাচ্চু মিয়া বলেন, মরদেহটি হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি কদমতলী থানা কে অবিহিত করা হয়েছে। মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার পাটাবো গ্রামের  মো: সালাউদ্দিন ও মা মনোয়ারা বেগম এর মেয়ে।

সে কদমতলীর পূর্ব শ্যামপুর শাহী জামে মসজিদ রোড পরিবারের সাথে থাকতো। এক ভাই এক বোনের মধ্যে সে বড় ছিলো। মৃতার বাবা একটি ফানির্চার কোম্পানিতে কাজ করেন। 

এমআর/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়