প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রদীপ কুমার দাস: ই-কমার্সে ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকদের ক্ষতি পোষাতে আমার প্রস্তাব

প্রদীপ কুমার দাস: দেশ ও সরকার যদি জনগণের হয়- তবে জনগণ ক্ষতিগ্রস্ত হলে, সরকারের দায়িত্ব আছে বৈকি। ইভ্যালি ও অন্যান্য ই-কমার্স সাইট গ্রাহকের কাছ থেকে যে অর্থ নিয়েছে, সেই অর্থ তারা খরচ করেছে বিভিন্ন খাতে।

যেমন: [১] খেলা স্পনসর।

[২] ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় অনুষ্ঠান স্পনসর।

[৩] প্রচারের জন্য বিভিন্ন সংস্থায় স্থাপনা তৈরিকরণ।[৪] মিডিয়াতে বিজ্ঞপ্তি ও প্রচারণায় অর্থ খরচ।

[৫] প্রভাবশালী ব্যক্তিদের খুশি রাখতে অর্থ প্রদান।

[৬] প্রতিষ্ঠানের অফিস,বাড়ি, গাড়িসহ বিভিন্ন স্থাপনায় অর্থ খরচ।

[৭] গ্রাহকদের পণ্য সরবরাহে বিপুল অংকের অর্থ ভর্তুকি প্রদান।

[৮] কর্মচারীদের বেতন ও অফিস পরিচালনায় ব্যয়। [৯] পণ্য সরবরাহকারিদের অর্থ পরিশোধ। ৮ ও ৯ নং খাতের অর্থ খরচ যৌক্তিক এবং প্রত্যেক ব্যবসায়ী মূলত এই দুই খাতে সিংহভাগ পুঁজি বিনিয়োগ করে তার ব্যবসা সাফল্যের সঙ্গে পরিচালনা করে থাকে।

আমি মনে করি, সরকার একটি শক্তিশালী কমিশন/অর্থ উদ্ধার কমিটি গঠন করে এই দুই খাত বাদে অন্যান্য খাতের মাধ্যমে যারা ই-কমার্সের সঙ্গেই ২ই ব্যবসা করে প্রচুর টাকা হাতিয়ে নিয়েছে, তাদের কাছ থেকে অর্থ উদ্ধারসহ যারা ই-কমার্স সাইট থেকে সেবা/অর্থ/আনুতোষিক গ্রহণ করেছে এবং যারা বেনিফিসিয়ারি তাদের সবার কাছ থেকে অর্থ আদায়ের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্তদের ফেরত দিয়ে তাদের ক্ষতি কিছুটা হলেও পুষিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। ফেসবুক থেকে

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত