প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাইফুদ্দিন আহমেদ নান্নু: মানুষকে মাস্ক পরায় উৎসাহিত করতে একটি প্রস্তাব

সাইফুদ্দিন আহমেদ নান্নু: করোনাকালের দেড় বছরেও আমাদের দেশের শিক্ষিত-অশিক্ষিত, বৃদ্ধ, তরুণ-তরুণী সব মিলে ৮০ থেকে ৮৫ ভাগ মানুষকে মাস্ক পরতে অভ্যস্ত করানো যায়নি। নানান কারণ, যুক্তি, কুযুক্তি,অজুহাতে মানুষ মাস্ক পরেনি। এই মাস্ক না পরা মানুষের অনেকগুলো ক্যাটাগরি আছে। এর মধ্যে অন্ধ, গোড়া ধর্মবিশ্বাসী, কুসংস্কারাচ্ছন্ন মানুষ যেমন আছে, ঠিক তেমনি চলতি হাওয়ায় বড় হওয়া তরুণের দলও আছে। এই যে ৮০/৮৫ ভাগ মানুষ মাস্ক পরেনি বা আমরা তাদের মাস্ক পরতে উদ্বুদ্ধ কিংবা বাধ্য করতে পারিনি তারই খেসারত দিচ্ছি প্রতিদিন লাশের মিছিল বাড়িয়ে, অসুস্থ মানুষে হাসপাতালের আঙিনা ভরিয়ে।

আমরা পারিনি। টিভির বিজ্ঞাপন, টকশোর তুমুল বক্তা,মুখচেনা রাজনীতিক,ডাক্তার,বিশেষজ্ঞদের কথা তারা শুনেনি,আমলেই নেয়নি, বিশ্বাস করেনি, আস্থা রাখেনি আমাদের ওপর। কারণ আমরা তাদের বিশ্বাস,আস্থা অনেক আগেই নানা কারণে হারিয়েছি। তাই বলে হালতো ছেড়ে দেয়া যাবে না। হাল ছেড়ে দেয়ার মানে হারিয়ে যাওয়া।

শেষ চেষ্টা হিসেবে আমরা যা করতে পারি: [১] আমরা আমাদের টেলিভিশনগুলোতে সকল রাজনৈতিক দলের পরিচ্ছন্ন সিনিয়র নেতা বলে এখনও যাঁরা পরিচিত তাঁদের জন্য স্পেস দিতে পারি। তাঁরা এক মিনিট, দুমিনিট সময় নিয়ে নিজ নিজ রাজনৈতিক দলের কর্মী, সমর্থকসহ সাধারণ মানুষকে মাস্ক পরার আহ্বান জানিয়ে বক্তব্য রাখবেন। দেশের সকল টিভি স্টেশন, পত্রিকা বাধ্যতামূলকভাবে এই রেকর্ডকৃত বক্তব্য প্রতিদিন নিয়মিত বিরতিতে বারবার প্রচার করবেন, প্রকাশ করবেন।

[২] একইভাবে বায়তুল মোকাররমের খতিবসহ দেশের বিভিন্ন জেলা, বিভিন্নপ্রান্তের শ্রদ্ধেয় আলেম, ইমাম, ধর্মীয় ব্যক্তিত্ব,পীরসাহেবসহ মন্দির,আশ্রম, উপাসনালয়ের শ্রদ্ধেয় পুরোহিত,ধর্মীয় ব্যক্তিত্বদের দিয়ে মাস্ক পরার আহব্বান সম্বলিত বক্তব্য প্রচার করতে পারি।

[৩] দেশের শ্রদ্ধেয় শিক্ষাবিদ, বুদ্ধিজীবী, সাহিত্যিক সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব,শিল্পী, ক্রীড়াবিদ, চিকিৎসকদেরও একইভাবে কাজে লাগাতে পারি।

[৪] মাস্কপরার আহব্বান সম্বলিত লাখ লাখ ছোট ছোট লিফলেট বিমান থেকে প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে,শহরে শহরে ছড়িয়ে দিতে পারি। আকাশ থেকে ফেলা এসব লিফলেটে মাস্কপরার আহ্বানের সাথে গণস্বাক্ষরের মতো রাজনীতিক, ধর্মীয় ব্যক্তিত্ব,সামাজিক, সাংস্কৃতিব্যক্তিত্বদের নাম উল্লেখ থাকবে। স্বাধীনতাপূর্ব এবং স্বাধীনতা পরবর্তীকালে বিভিন্ন ইস্যুতে হালকা সেসনা বিমান থেকে এমন লিফলেট ছড়িয়ে দেওয়ার বিষয়গুলো আমরা দেখেছি। মানুষকে এসব লিফলেট দারুণভাবে প্রভাবিতও করেছে। আন্তরিক ইচ্ছা থাকলে এসব কাজ খুব অনায়াসেই করা সম্ভব এবং আমার বিশ্বাস এমন উদ্যোগ বর্তমান প্রচারণার তুলনায় মানুষকে শতগুণ প্রভাবিত করবে। ফেসবুক থেকে

সর্বাধিক পঠিত