প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সিলেটে মুরগির বাজার চড়া, বিপাকে ক্রেতারা

আবুল কাশেম : [২] একদিকে লকডাউন, অন্য দিকে রমজান মাস, নেই সাধারন মানুষের হাতে টাকা সব মিলিয়ে বিপাকে মধ্যবিত্তরা। রমজানের মাঝা মাঝি এসে হঠাৎ করে মুরগির চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় সব ধরনের মুরগির দাম আরেক দফা বেড়েছে।

[৩] মুরগির বাজার তিন দিনের ব্যবধানে ব্রয়লার মুরগির দাম কেজি প্রতি ১০ টাকা বেড়েছে। একই সরবরাহ নেই বাজারে। সম্প্রতি যান চলাচল ব্যাহত হওয়ায় বন্দরবাজারের নাজুক।

[৪] এ অবস্থা লাল লেয়ার মুরগির ক্ষেত্রেও। অন্যদিকে কক মুরগির দাম কেজিতে ১০ বাজার গুলােয় মুরগি সরবরাহে তারতম্য ঘটেছে। তাই পাইকারিতে দাম বেড়ে থেকে ২৫ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে।

[৫] সিলেটের বিভিন্ন বাজার ঘুরে এ তথ্য পাওয়া গেছে। ব্যবসায়ীরা জানান,শনিবার পাইকারিতে আমাদেরই ব্রয়লার মুরগি কিনতে হয়েছে ১৪৫ থেকে গেছে।

[৬] গত শুক্রবার ব্রয়লার মুরগির কেজি বিক্রি হয়েছে ১৫০ থেকে ১৫৫ এখন তা ১৬০ টাকায় বিক্রি করতে হয়েছে। এছাড়া লাল লেয়ার মুরগি ১৫০ ব্যবসায়ীদের অজুহাত। অনেকের গরুর মাংস কিনে খাওয়ার সামর্থ না থাকায় তাই বাধ্য হয়ে মুরগি কিনেত হচ্ছে।

[৭] বর্তমান বাজারে কক মুরগি ২৫০ থেকে ২৬০ টাকা এবং দেশি মুরগি ৪৫০ বাধ্য হয়ে মুরগি কিনতে হচ্ছে। লকডাউনের সুযোগে দাম বাড়ানো হয়েছে মুরগির। প্রথম রজমান থেকে ৪৮০ টাকা কেজি দামে বিক্রি করতে হচ্ছ লাল মুরুগ। গত সপ্তাহের শেষের দিকেও কেন্দ্র করেই আরেক দফা দাম বাড়ানো হয়েছে।

[৮] তবে খামারিরা জানান, লকডাউনের কারণে বিভিন্ন কোম্পানীর বাচ্চার গাড়ি ঢাকা থেকে নিয়ে আসতে পারছে না। যার কারণে সিলেটে মুরগির বাজারে চাহিদা বেশি সে তুলনায় উৎপাদন কম এ প্রেক্ষিতে বাজারে কিছুটা প্রভাব পড়েছে। লকডাউন উঠে গেলে বাজার আবার স্বাভাবিক হবে। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত