প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চুয়াডাঙ্গায় জমির জন্য অসুস্থ পিতাকে বেধড়ক মারধর

সোহেল রানা ডালিম: চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার নবীননগরে জমি লিখে না দেওয়ায় অসুস্থ পিতাকে ঘরে আটকে রামদা ও বাটাম দিয়ে বেধড়ক মারধর করেছে প্রথম স্ত্রীর দুই ছেলে। পরে স্থানীয়রা আহত ইয়াকুব আলীকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নেয়। এ ঘটনায় ইয়াকুব আলীর দ্বীতিয় স্ত্রী বাদী হয়ে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

(১১-এপ্রিল) বিকেল ৫টার দিকে অসুস্থ ইয়াকুব আলী চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি গেলে প্রথম স্ত্রীর দুই ছেলে জহিরুল ও সাদমান তাকে মারধর করে।

আহত ইয়াকুব আলীর দিত্বীয় স্ত্রী রোকেয়া বেগম জানন, গত দেড় মাস আগে সড়ক দুর্ঘটনায় পা ভেঙ্গে যায় তার স্বামী ইয়াকুব আলীর। অপারেশন করে পায়ে রড দেওয়ার পর থেকেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলো সে। গতকাল ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ী গেলে তার স্বামীর আগের পক্ষের দুই ছেলে জহিরুল (৪৭) ও সাদেমান(৩০) তাদের বাড়িতে আসে। অসুস্থ বাবাকে দেখার নাম করে ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দিয়ে তাদের নামে জমি লিখে দিতে জোর জবরদস্তি করতে থাকে। তার স্বামী জমি লিখে দিতে রাজি না হওয়ায় ঘরে থাকা রামদা ও বাটাম দিয়ে বেধড়ক মারধর করতে শুরু করে। পরে তাদের চিৎকারে আশে পাশের লোকজন ছুটে আসলে জহিরুল ও সাদেমান পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় ইয়াকুবকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে ভর্তি রাখেন।

আহত ইয়াকুবের দ্বিতীয় স্ত্রীর ছোট ছেলে রাসেল অভিযোগ করে বলেন, প্রায়ই তারা বাবাকে হুমকি ধামকি দিতো জমি লিখে দেওয়ার জন্য। সে আরও বলেন, তার বাবা হাসপাতালে ভর্তি থাকা অবস্থায়ও তারা এসে জমির জন্য হুমকি ধামকি দিয়ে গছে। এ ঘটনায় আহত ইয়াকুবের দ্বিতীয় স্ত্রী বাদী হয়ে জহিরুল ও সাদেমানকে আসামী করে সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সর্বাধিক পঠিত