প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ওহাইও’তে কৃষ্ণাঙ্গ যুবককে গুলি করে মারল মার্কিন পুলিশ, পথে পথে বিক্ষোভ

রাশিদুল ইসলাম : [২] ডিসেম্বর মাসে যুক্তরাষ্ট্রে এই নিয়ে দ্বিতীয় কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তিকে খুন করল পুলিশ। সোমবার রাতে ৪৭ বছর বয়সি আন্দ্রে মরিস হিল তার বাড়ির গ্যারেজে ছিলেন, কিছু কাজের জন্য। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, আন্দ্রে বাঁ হাতে একটি মোবাইল ফোন ধরে আছেন, পুলিশের দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন তিনি। তার ডান হাতটি দেখা যায়নি। তখনই এক পুলিশ তাকে লক্ষ্য করে একাধিক গুলি চালায়। মারা যান আন্দ্রে। সিএনএন

[৩] যে পুলিশ গুলি চালিয়েছেন, তার নাম অ্যাডাম কয়। পুলিশ জানিয়েছে, অ্যাডাম ভেবেছিলেন আন্দ্রে মরিস তার দিকে এগিয়ে আসছিলেন অস্ত্র হাতে। অ্যাডামকে মেরে ফেলতেন তিনি, তাই আত্মরক্ষার্থে গুলি চালিয়েছেন অ্যাডাম। কিন্তু এটা খুব বড় ভুল হয়ে গেছে। শুধু তাই নয়, তথ্য বলছে, অ্যাডামের বিরুদ্ধে আগেও এরকম অতিরিক্ত সতর্কতার অভিযোগ রয়েছে।

[৪] প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, আন্দ্রে মরিসের কাছে কোনও অস্ত্র ছিল না। গত ৪ ডিসেম্বরে ২৩ বছরের কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ ক্যাসে বড়দিনের ছুটিতে বাড়ি ফিরছিলেন, তার হাতের স্যান্ডউইচকে অস্ত্র বলে ভুল করে গুলি চালিয়ে বসে পুলিশ। মারা যায় ক্যাসে।

[৫] শাস্তি হিসেবে অ্যাডামকে সাসপেন্ড করা হয়েছে, তার সার্ভিস ব্যাজ ও অস্ত্র জমা নিয়েছে পুলিশ দফতর। তদন্তের পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত পুলিশ বিভাগে তিনি নিষিদ্ধ থাকবেন।

[৬] পরপর এই দুই হত্যার পরেই ফের ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ পতাকা ও ব্যানার নিয়ে পথে নেমেছেন বিক্ষুব্ধ মানুষ। জুন মাসে প্রথম শুরু হয় এ বিদ্রোহ। জর্জ ফ্লয়েড নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ যুবকের গলায় হাঁটু চেপে ধরে শ্বাসরোধ করে তাকে হত্যা করেছিল পুলিশ। সামনে আসে সে ভিডিও। এর পরেই অগস্ট মাসে ফের দেখা যায়, উইসকনসিনের কেনোশায় এক কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জেকব ব্লেককে পিছন থেকে পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জে পরপর সাতটা গুলি চালায় পুলিশ। সেবার জেকব প্রাণে বাঁচলেও, আবারও আছড়ে পড়ে প্রতিবাদের ঝড়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত