প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রচুর আয়ে রনির জীবন ছিল বিলাসবহুল

ডেস্ক রিপোর্ট : শাহ মাহবুবুর রহমান রনি (২৫)। হবিগঞ্জ সদরের বাগুনী পাড়ার বসিন্দা। পিতা শাহ জাহাঙ্গীর। তিনি মাজার ভক্ত লোক। রনি একজন মেধাবী ছাত্র হলেও তার সম্পর্কে এলাকাবাসীর ভালো ধারণা নেই। সে তার এলাকায় ও সিলেটে একজন নারী উত্যক্তকারী হিসেবে পরিচিত।

সিলেটে ছাত্রলীগের বড় নেতা হিসেবে জাহির করে সে এলাকায় দাপিয়ে বেড়াতো। সেখানেও সে বখাটেদের নিয়ে একটি বাহিনী গড়ে তোলে। এলাকায় গেলে তাদের নিয়ে নেশার আড্ডা বসাতো। তার জীবন ছিল অনেকটা বিলাসবহুল। মোটরসাইকেল চড়ে, দামি কাপড় পরে রীতিমত এলাকায় রাজপুত্রের বেশে চলাচল করতো।

রনি সায়েস্তাগঞ্জের একটি কলেজ থেকে ইন্টারমিডিয়েট পাস করার পর সিলেট এমসি কলেজে পড়ার সুবাদে ছাত্রলীগ রাজনীতির সঙ্গে জড়িত হয়। এসময় ছিনতাই, চাঁদাবাজির সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে সে। তার প্রচুর আয়ের সুবাদে পারিবারের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটে। ২০১২ সালের ৮ জুন এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে রনি আগুন দেয়ার ঘটনায় জড়িত ছিল বলে এলাকাবাসী জানান।

সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণ মামলার অন্যতম আসামি ছাত্রলীগকর্মী এই মাহবুবুর রহমান রনি। তাকে গত রবিবার রাতে র‌্যাব-৯ এর একটি দল হবিগঞ্জ শহরের অনন্তপুর এলাকার এক আইনজীবীর বাসা থেকে গ্রেফতার করে।

ইত্তেফাক

সর্বাধিক পঠিত