প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অজয় দাশগুপ্ত : তারপর? সব ফকফকা

পাহাড়ে আবারো ধর্ষিতা হয়েছে আমার মা, আপনার জায়া অথবা বোন। অথচ সে নিয়েও বিভক্ত আমরা।
ছবি নিয়ে চলছে তর্ক বিতর্ক। যারা সরকারী দলের সুযোগ সুবিধায় অন্ধ তারা বলছেন,এটা তো ২০১৮ সালের ছবি। এখন ভাইরাল করার কারণ কি?

তাদের কথায় যুক্তি আছে। কিন্তু একটা প্রশ্ন করি, ২০১৮ সালে কারা ছিলো ক্ষমতায়? এর দায় কার?

আরেকটা বিষয়, আপনারা কিন্তু অস্বীকার করতে পারছেন না গতকালও পার্বত্য জনপদে মাথায় শিং গজানো নীচে লিঙ্গ নামের শাবল নিয়ে একদল অমানুষ পাহাড়ি নারীকে ইচ্ছেমতো ধর্ষণ করেছে। বাড়ীর অন্য মানুষ জন ছিলো বন্দী দর্শক।

কোন যুগে বাস করছি আমরা? ডিজিটাল দেশে উন্নয়নের জোয়ারেও এই ঘটনা ঠেকানো যাচ্ছে না। সেটেলার বাঙালিরা মাঝে মাঝে এমন ঘটনা ঘটায় আর সুশীল ভদ্রলোক আমরা হৈ হৈ করে উঠি। এই ক দিনের জোশ উৎসাহ বাদ প্রতিবাদ আর কি!
তারপর? সব ফকফকা। ধর্ষকেরা আবার প্রস্তুতি নেবে। ঘরে ঘরে কোন আদিবাসী তরুণী বা রমনী অপেক্ষা করবে তার ইজ্জত নামের সব হারিয়ে শিরোনাম হবার।

লজ্জা বলিয়া চোখের কোন চামড়া আর অবশিষ্ট থাকিলো না।

আহা রে আদিবাসী, নিজভূমে পরবাসী।আহারে বাঙালি নারী।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত