প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] প্রেমের টানে ধর্ম ছেড়ে অবশেষে লাশ হলেন কল্পনা

রহিদুল খান : [২] পরকীয়ার টানে এক বছর আগে স্বামী ও তিন মেয়েকে রেখে সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে আব্বাস আলী (৪০) নামে এক ব্যক্তির হাত ধরে মুসলিম হয়েছিলেন কল্পনারানি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত জীবন দিয়ে ভালোবাসার মূল্য দিতে হয়েছে তাকে।

[৩] কল্পনার আগের স্বামী চিত্তরঞ্জন বর্তমানে আমেরিকা প্রবাসী। একবছর আগে তিনি স্ত্রীকে সেখানে নিয়ে যেতে চেয়েছিলেন। সব ঠিকঠাক করে যে দিন নিয়ে যাবেন সেদিনই আব্বাসের সঙ্গে ঘর ছাড়েন কল্পনা।

[৪] আব্বাস যশোরের মণিরামপুর উপজেলার মাঝিয়ালী গ্রামের শরিয়তউল্লাহর ছেলে। তার আগের স্ত্রী ও দুই মেয়ে রয়েছে। চিত্তরঞ্জনের বাড়িও একই গ্রামে।

[৫] স্থানীয়রা জানান, একবছর আগে আব্বাসের হাত ধরে ঘর ছাড়েন কল্পনা। এরপর তাকে নিয়ে যশোর শহরতলির চাঁচড়া এলাকায় শান্ত মেম্বারের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন তারা। বুধবার (২২ জুলাই) বিকেলে কল্পনার লাশ মাঝিয়ালী গ্রামে নিয়ে আসেন আব্বাস। তার ভাষ্য, কল্পনা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। খবর পেয়ে খেদাপাড়া ক্যাম্প পুলিশ লাশসহ আব্বাসকে কোতয়ালী থানায় পাঠায়। আব্বাস সেখানে পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন।

[৬] খেদাপাড়া ক্যাম্প পুলিশের আইসি এসআই গোলাম রসুল বলেন, ‘চাঁচড়া থেকে কল্পনা নামে এক নারীর লাশ মণিরামপুরের মাঝিয়ালী গ্রামে আনার পর আমরা ঘটনাস্থলে যাই। পরে পুলিশ পাহারায় রাতে আবার লাশ কোতয়ালী থানায় পাঠানো হয়।’

[৭] যশোর কোতয়ালী থানার ইনসপেক্টর (তদন্ত) তাসমীম বলেন, ধারণা করা হচ্ছে আব্বাস কল্পনাকে মারপিট করেছে। সেই সন্দেহ থেকে তাকে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে অপমৃত্যু মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সম্পাদনা: সাদেক আলী

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত