প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ধর্ষণের পর ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে পড়া ভারতীয় নারীদের সঙ্গে বেমানান : আদালত

সালেহ্ বিপ্লব : [২] এমন পর্যবেক্ষণের ভিত্তিতে ধর্ষণে অভিযুক্তকে এক লাখ রূপীর ব্যক্তিগত বন্ডে জামিন দিয়েছেন কর্ণাটকের হাইকোর্ট। মামলার যৌক্তিকতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। হাইকোর্টের বক্তব্য, “তথ্য-প্রমাণে চোখ বুলিয়ে বিশ্বাস হচ্ছে না যে, অভিযুক্ত বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধর্ষণ করেছেন।” এনডিটিভি বাংলা, সিন্ডিকেট ফিড

[৩] ওই নারী অভিযুক্তের সংস্থায় দু’বছর ধরে কাজ করছেন। জামিন মামলার শুনানিতে আদালত বলেছেন, “নিগৃহীতা বলে দাবি করা মহিলা স্পষ্ট করেননি কেনো তিনি রাত ১১টার সময় অফিসে গিয়েছিলেন। অভিযুক্ত তাকে মদ্যপানের প্রস্তাব দিলেও তিনি না করেননি। এমনকী, সারারাত অভিযুক্তের সঙ্গে রাত কাটানোয় কোনও আপত্তি তোলেননি অভিযোগকারী।”

[৪] বিচারক কৃষ্ণ এস দীক্ষিত আরো বলেন, “রাত কাটানো প্রসঙ্গে আবার নিগৃহীতা বলেছেন, সেই নির্যাতনের পর তিনি ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে পড়েছিলেন। এটা ভারতীয় নারীর সংস্কৃতির সঙ্গে বেমানান। এমনকী, কোনও ভারতীয় মহিলা নির্যাতিত হলে কখনই এই ধরনের আচরণ করে না ।’’

[৫] এদিকে, আদালতের বাইরে আপস হলে মামলা প্রত্যাহার করবেন নিগৃহীতা। এমন একটা প্রস্তাব গিয়েছে অভিযুক্তের কাছে। এ প্রসঙ্গে আদালতের বক্তব্য, “এর আগে বহুবার অভিযুক্ত নিগৃহীতাকে যৌন নিগ্রহ করেছে। এমন অভিযোগ তোলা হয়েছে। তাহলে তখন কেন তিনি কোর্টের দ্বারস্থ হননি?”

 

সর্বাধিক পঠিত