প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

লকডাউনে বন্দী বৈশাখের মুক্তপ্রেমসরূপ পেলাম শাড়ি

শাহানাজ খুশি : সেদিন এক বন্ধু ফোন দিলো। কেমন আছি জিজ্ঞাসা না করেই বললো, ‘বাজার সদাই আছে তো, কী লাগবে বলো’! আমি অপ্রস্তুত হয়ে গেলাম, সেই সাথে খানিকটা আবেগী। কারণ এমন প্রশ্নের জন্য এই দুঃসময়ে আমি প্রস্তুত ছিলাম না। আমি যেহেতু ১০ তারিখে ঘরে বন্দী হয়েছি, তাই বেশ কিছু জিনিসের প্রয়োজন থাকলেও আমি কৃতজ্ঞতাসহ আড়াল করলাম। এই দুর্দিনে এটুকু বলবার লোকও তো নাই সেটা ভেবে। অনেক প্রাণের গল্প হলো ঘণ্টা ভরে। কথার মধ্যে মাছে ভাত খাওয়া হয় না, শুধু ডিম, এমন কিছু হয়তো ছিলো। সকালে তার পাঠানো এতোগুলো অপ্রত্যাশিত ভালবাসা। ছোট মাছ কিনে/প্রসেস করে পাঠিয়েছে, সঙ্গে এই লকডাউনে বন্দি বৈশাখের মুক্ত প্রেম স্বরূপ শাড়ি। এই মাছ হয়তো ৪/৫ দিনে শেষ হয়ে যাবে, আমার অনেক শাড়ির ভাঁজে হয়তো এটা হারিয়ে যাবে, কিন্তু যে ভালোবাসা আমি পেয়ে গেলাম, তা আমৃত্যু আমার প্রাণে দ্যুতি ছড়াবে। এমন ভালোবাসা গুলোর জন্যই ঘরবন্দি থেকেও বাঁচতে ইচ্ছা করে। অন্যদের ভালোবাসার জন্য অপেক্ষা করতে ইচ্ছা করে। মায়া বাড়ানো বন্ধু, তোমার জন্য আমার মুক্ত জীবনের এক আকাশ ভালোবাসা। তুমি এমন অনেক প্রাণের ভালবাসায় আয়ুষ্মান হও। তোমার এ ভালোবাসা, করোনার বিরুদ্ধে আমার এক শক্তিশালী হাতিয়ার হলো। সবাইকে বৈশাখী শুভেচ্ছা। মুচকি হেসে লাভ নেই, আমার এই বন্ধুটা একজন নারী। তার অনুমতি ছাড়া নাম দেয়া যাবে না। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত