প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেশি হলে কি আমরা খুশি হই, জানতে চাইলেন স্বাস্থমন্ত্রী

ডেস্ক নিউজ: [২] আজ রোববার রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে যুক্ত হন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। সেখানে তিনি এ কথা বলেন।

[৩] দেশে করোনাভাইরাসে শনাক্ত ব্যক্তির সংখ্যা নিয়ে সংশয় প্রকাশকারীদের উদ্দেশে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ‘অনেকে বলছে, সংখ্যা এত কম কেন। কেন, সংখ্যা বেশি হলে কি আমরা খুশি হই? আমরা কি চাই বেশি বেশি লোক সংক্রমিত হোক? বেশি বেশি লোক মৃত্যুবরণ করুক? আমরা তো চাই আমাদের দেশের লোক সংক্রমিত না হোক। আমাদের দেশের লোক মৃত্যুবরণ না করুক। এটিই সবচেয়ে বড় বিষয়।’

[৪] মন্ত্রী বলেন, ‘গতকাল আমরা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) সঙ্গে যুক্ত হয়েছিলাম। এর সঙ্গে বিশ্বের ১০টি দেশ ছিল। জাতিসংঘ সন্তোষ প্রকাশ করেছে। প্রধানমন্ত্রীও সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। তাঁর সঙ্গে আমার কথা হয় প্রতিদিন।’

[৫] স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ভালো আছি। বাংলাদেশ পৃথিবীর অনেক দেশের তুলনায় এখন অনেক ভালো আছে। আমরা অনেক আগে প্রস্তুতি নিয়েছি বলেই আমরা ভালো আছি। ইউরোপ-আমেরিকার অবস্থা কেমন, সেটা আপনারা জানেন।’

[৬] জাহিদ মালেক আরও বলেন, ‘অনেকে বলছেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কাজ যদি আগে থেকে করত, তাহলে পরিস্থিতি এমন হতো না। দেশে যত বিদেশি এসেছেন, তাঁদের দেশে আসা ঠেকানোর দায়িত্ব কি আমাদের? আমরা কি প্লেন আটকাতে পারব? স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় চিকিৎসা দিতে পারে। অনেক ব্যবসায়ী বলছেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় দায়ী। তাঁদের ইউরোপ-আমেরিকা থেকে অর্ডার বন্ধ হয়ে গেছে। এর দায় কি আমাদের?’

[৭] স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা সম্প্রতি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এ বিষয়ে মন্ত্রীকে প্রশ্ন করা হলে মন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় তো বড় মন্ত্রণালয়। এখানে অনেক কর্মকর্তা আছেন। এখানে অনেকে আছেন। চিকিৎসকেরা আসা-যাওয়া করেন। অনেকে আসা-যাওয়া করেন। এর মধ্যে কেউ করোনায় আক্রান্ত হতে পারেন। তিনি কোয়ারেন্টিনে আছেন কি না, প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘আমি তো কাজ করছি। টেস্ট করিয়েছি, আমি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হইনি। আমি কোয়ারেন্টিনে আছি তা বলব না, অন্যরা যেভাবে আছেন, সেভাবে আছি।’সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত