প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

হাঁটলে প্রাকৃতিকভাবেই সুস্থতা মেলে

মাজহারুল ইসলাম : হাঁটার ফলে মানুষের চিন্তার সৃজনশীলতা বৃদ্ধি পায়। মেজাজ ভালো থাকে। কমে মানসিক চাপ। এর বাইরেও হাঁটার অনেক উপকারিতা আছে। কারণ হাঁটা হচ্ছে সবচেয়ে ভালো ব্যায়াম। চিকিৎসকরা সবসময়েই হাঁটার বিষয়ে উৎসাহ ও পরামর্শ দিয়ে থাকেন। কিন্তু বেশিরভাগ মানুষই তা অনুসরণ করেন না।  ডাবলিন ট্রিনিটি কলেজের মস্তিষ্ক বিষয়ে গবেষক স্নায়ুবিজ্ঞানী প্রফেসর শেন ওমারা হাঁটার জন্য ৮টি কারণ ব্যাখ্যা করেছেন। তিনি বলেন, হাঁটার ফলে শরীরের পেশী সুগঠিত হয়। শরীরের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সুরক্ষিত থাকে ও মেরামত হয়। হজমে সাহায্য করে এবং মস্তিষ্ক সতেজ রেখে বার্ধক্য প্রতিরোধ করে। বিবিসি

শেন ওমারা হাঁটার জন্য যে ৮টি কারণের কথা বলেছেন, তারমধ্যে মস্তিষ্ক সক্রিয় থাকা অন্যতম। নিষ্ক্রিয় থাকার অর্থ শরীরে পেশীর শক্তি কমে যাওয়া। কিন্তু তার চেয়ে বড় কথা এরফলে মস্তিষ্কও শুকিয়ে মারা যেতে শুরু করে। আমরা যখন হাঁটি তখন পেশীতে তৈরি হওয়া মলিকিউল বা অণু আমাদের মস্তিষ্ককে সচল রাখতে সাহায্য করে। এরমধ্যে একটি বিশেষ অণু মস্তিষ্কে রক্ত চলাচলে সাহায্য করে। এরফলে মস্তিষ্কের কোষগুলো বিকশিত হয়। তাই হাঁটলে মস্তিষ্ক আরও শক্তিশালী হয়। এছাড়াও হৃদপিণ্ড ভালো রাখার জন্যও হাঁটা খুবই উপকারী।
শেন ওমারা বলেন, আমাদের পূর্বপুরুষরা দিনে ১৫ থেকে ১৭ মাইল হাঁটতেন। আর তাই এখনকার তুলনায় তখন মানুষের হার্ট অনেক ভালো ছিলো। সম্পাদনা : সালেহ্ বিপ্লব

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত