প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নেইমার না থাকলেও দলে আত্মবিশ্বাসের কোনো ঘাটতি দেখা দিবে না

রাকিব খান : আজ বিশ্বকাপের অন্যতম ফেবারিট দল ব্রাজিল মুখোমুখি হয়েছে কোস্টারিকার বিরুদ্ধে। ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬ টায় রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্র্গ স্টেডিয়ামে শুরু হয়েছে। গত ম্যাচে সুইজারল্যান্ডের বিরুদ্ধে ব্রাজিলের বিশ্বকাপ যাত্রাটা তেমন ভালো হয়নি। সে ম্যাচ উভয় দলই ড্র করেছিলো। দলের নির্ভরশীল খেলোয়াড় নেইমার থাকা সত্ত্বেও ম্যাচটি ড্র করেছিলো তারা।

এদিকে ব্রাজিল এবং ইরোপের মিডিয়ার খবরে বলা হচ্ছে দীর্ঘ ইনজুরি কাটিয়ে ওঠা নেইমারকে আজকের ম্যাচে বিশ্রাম দেয়া হতে পারে। অন্যদিকে ব্রাজিল দলের কোচ বলছে, নেইমার দলের জন্য এখনো শতভাগ ফিট নয়। কিন্তু সব জল্পনা আর কল্পনার অবসান ঘটিয়ে আজকের ম্যাচে খেলছেন নেইমার। আর যদি এমনটা হতো তাহলে কোস্টারিকার বিরুদ্ধে ব্রাজিলের কেমন রূপ দেখতে পারে তাদের ভক্তরা? এ ছাড়া এই খেলার হার জিৎ কেমন প্রভাব ফেলতে পারে এসব বিষয় জানতে বিবিসির কথা হয়েছিলো বিবিসির সাবেক স্পোর্টস এডিটর এবং ক্রিড়া ভাষ্যকার মিহির ভোষের সাথে।

মিহির ভোষ বলেন, আমি জানি নেইমার ফিট নয়। কিন্তু তিনি যেভাবে খেলছে মনে হয় সে ব্রাজিল দলের কথা ভাবছে। যদি নেইমার বিশ্রামে যায় তাহলে ব্রাজিলকে নেইমারকে ছাড়াই খেলতে হবে। এতে ব্রাজিলিয়ান দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে আত্মবিশ্বাসের কোনো ঘাটতি দেখা দিবে না। যখন নেইমার ছিলো না ব্রাজিল দলটা তেমন ভালো করেনি। কিন্তু এখন মনে হয় নেইমার যদি নাও খেলে ব্রাজিলের দল অতটা ভাববে না যে নেইমার খেলছে না দেখে আমরাও খেলবো না। এখন ব্রাজিলের দলে অনেক ভালো ভালো খেলোয়াড় আছে।

তাহলে এটা কি নেইমারের ফিটনেসের অভাবকে বলবে নাকি দলের সঙ্গে সমন্বয়হীনতাটাকে বলবে? বিবিসির এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এখানে দুটোই হবে। ফিটনেস হলো একটা জিনিস। অন্যদিকে নেইমারতো বড় খেলোয়াড়। যদিও মেসির মতো অতো বড় খেলোয়াড় না। তাই এসব খেলোয়াড়রা নিজেদের কথা ভাবে বেশি। যদি আমরা মেসির দিকে দেখি তাহলে দেখবো মেসি এই বিশ্বকাপে আইসল্যান্ডকে হারাতে পারেনি। মনে হচ্ছে মেসি শুধু মেসির মতোই খেলে। আর নেইমার যা দেখালো সুইজারল্যান্ডের বিরুদ্ধে সেখানেও দেখা যায় নেইমার নেইমারের মতোই খেলছে। এখানে ব্রাজিলের কি দরকার ওভাবে খেলছে না।

ব্রাজিলের প্রথম ম্যাচের ড্র নিয়ে তিনি বলেন, ব্রাজিল তাদের প্রথম ম্যাচটা সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ড্র করেছিলো। সেখানে ব্রাজিল একেবারে খারাপ খেলেনি। কিন্তু ঐ ম্যাচটা থেকে ব্রাজিলকে অনেক কিছু শিখতে হবে। সেখানে প্রথম ২০ থেকে ২৫ মিনিট এর পরে ব্রাজিলের পক্ষে গোল আসে। আর সে গোলের সুবাধে মনে হয়েছিলো ব্রাজিল ৬ থেকে ৭টি গোল দিবে। কিন্তু তারপর ম্যাচটি ড্র হয়। ব্রাজিল সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে একটাই গোল দিবে সেটা ভাবা মুশকিল। তিনি আরও বলেন, আমার কাছে মনে হচ্ছে ২০১৪ সালের বিশ্বকাপে ব্রাজিল জার্মানির কাছে ৭-১ এ হেরেছিলো সেটার থেকে এখনো বেড় হয়ে আসতে পারেনি। আরেকটা বিষয় হলো নেইমার কি করবে? আমার কাছে মনে হচ্ছে আজকের ম্যাচে নেইমার নিজের জন্য খলবে। নেইমার যখন বলটা পায় তখন সে চায় ২টা কিংবা ৪টা খেলোয়াড়কে কাটিয়ে যাবে। কিন্তু এটা দলের খেলা। এখানে সকলের জন্য খেলতে হবে।

ব্রাজিলের গত খেলায় ক্যাপ্টিন ছিলেন মার্সেলো। কিন্তু এবার তার জায়গা নিয়েছে সিলভা। এই অধিনায়ক পরিবর্তনে খেলার ফলাফলে কোনো পরিবর্তন আনবে কি-না? বিবিসির এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, না ফলাফলে কোনো পরিবর্তন আনবে না। এখানে কোচ যেটা ভালো মনে করে সেটাই হবে। আর এটা হলো ব্রাজিলের কোচের নতুন একটা টেকনিক।-বিবিসি বাংলা

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত