প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বইমেলার আকর্ষণ বাড়ছে, পাঠক কমছে, কেন!

দীপক চৌধুরী :আমার দুটি বই এসেছে বইমেলায়। ‘কেন টার্গেট শেখ হাসিনা এটি একটি প্রবন্ধগ্রন্থ।

’৭৫ এর ছ বছর পর দেশে ফেরা থেকে শুরু হয় আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। এরপর একে একে বহুবার তাঁকে হত্যার টার্গেট। সপরিবারে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার ও খুনিদের ফাঁসি কার্যকর করা, ’৭১-এর যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শুরু করা ও ফাঁসি কার্যকর করা, ২০০৯ সালের ফেব্রুয়ারির পিলখানা ট্র্যাজেডি ও হত্যাযজ্ঞের বিচার করার মধ্যদিয়ে সরকার প্রধান হিসেবে শেখ হাসিনার উজ্জ্বল ইমেজ তৈরি হয়েছে বিশে^।

এটি প্রমাণিত যে কোনোভাবেই উনাকে দমানো যায় না, না অর্থলোভ দেখিয়ে, না মৃত্যুভয় দেখিয়ে। ‘ভালবাসার ডুবসাঁতার’ নামে আরেকটি বই এসেছে। এর প্রতিটি গল্পই মুক্তিযুদ্ধকে ঘিরে। মুক্তিযুদ্ধের উদ্দেশ্য, মুক্তিযুদ্ধের ত্যাগ, হিং¯্রতা, ব্যাপ্তিকাল, বিকৃতি সবকিছুরই উল্লেখ রয়েছে একমলাটে। সন্তানের একমাত্র অপরাধ এই যে, পিতা মুক্তিযোদ্ধা!

এক মুক্তিযোদ্ধার অসহায় সন্তানকে নিষ্ঠুর বিচারের মুখোমুখি হতে হয়। যারা বাস্তবে ‘শরণার্থী শিবিরের নেকড়ে’ দেখেননিÑ এই বইয়ে এর চিত্ররূপও পাওয়া যাবে। এই প্রজন্ম ১৯৭১-এর সেই ভয়াবহতা পাবেন এতে। প্রেম- রোমাঞ্চও আছে ‘ভালবাসার ডুবসাঁতারে?’
একুশ গ্রন্থমেলা শেষ হওয়ার পথে। দেশের ঔপন্যাসিক, গল্পকার, কবি, প্রকাশক, মুদ্রণ ও প্রকাশনা শিল্প সংশ্লিষ্টরা বছরের একমাত্র ফেব্রুয়ারি মাসটি ঘিরে আশায় থাকেন।

গত কয়েকদিন বইমেলায় ঘুরে, কয়েকটি স্টলের বই হাতে নিয়ে ওলট-পালট করে বোঝা গেলো; যদিও অন্যবারের মতো প্রচুর বই প্রকাশ হয়েছে কিন্তু মানসম্মত বইয়ের সংখ্যা হাতে গোণা। হৃদয় দিয়ে অনুভব করা বা চিন্তা শক্তি খরচ করা হয়নি বললেই চলে। পরশ্রীকাতরতা, কূটবুদ্ধি, যৌনজীবন নিয়ে লেখা বই বিক্রি করতে কষ্ট হয় না, দেখলাম। কথায় আছে, বিদ্যালয়ে যাওয়া মানেই শেখা নয় আর পত্রিকায় লেখা ‘ছাপা হওয়া’ মানেই লেখক হওয়া নয়। বহু বই রয়েছে পা-ুলিপিও ঠিকমতো সম্পাদনা করা হয়নি, পত্রিকায় ছাপাতো দূরের কথা।

বই বাড়ছে, প্রকাশকের সংখ্যা বাড়ছে কিন্তু বইয়ের মানবৃদ্ধির ক্ষেত্রে প্রকাশকদের আগ্রহ যেনো কমছে। এখনতো কম্পিউটারের যুগ। লেটার প্রেসের যুগেও বই ছাপা হতো ২২৫০ কপি। এখন তা ৫০০ কপি থেকে ৩০০ কপিতে নেমে এসেছে। বর্তমান বাজারদর অনুযায়ী ৩০০ কপি বিক্রি হলেও লাভ হয় না।

‘পুসিং সেল’ করার দায়িত্ব কাঁধে নিয়ে কোনো কোনো তরুণ লেখক বইয়ের কাগজ,কভার, ছাপার অর্থ, প্রচ্ছদ শিল্পীর সমুদয় পাওনা মিটিয়েÑ অর্থাৎ সকল খরচ বহন করার শর্তে নিজের লেখা বইটি প্রকাশ করতেও দ্বিধা করেন না। হয়তো যেভাবেই হোক একজন লেখক এটা করতেই পারেন কিন্তু প্রকাশকদের কী কোনো দায়িত্ব থাকে না বা নেই? বাংলা একাডেমির তথ্য অনুযায়ী, ২০১৭ সালে গ্রন্থমেলায় বিক্রি হয়েছে ৬৫ কোটি ৪০ লাখ টাকার বই। ২০১৬ সালে এ বিক্রির পরিমাণ ছিল ৪০ কোটি ৫০ লাখ। ২০১৫ সালে ২১ কোটি ৯৫ লাখ টাকার বই বিক্রি হয় মেলায়।

২০১৪ সালে বিক্রি হয় ১৫ কোটি এবং ২০১৩ সালে বই মেলায় বিক্রি হয় ১০ কোটি ১৪ লাখ টাকার বই। দেখা গেছে, প্রতিবছরই নতুন বই প্রকাশও বাড়ছে।
লেখক : সিনিয়র সাংবাদিক, কলামিস্ট ও ঔপন্যাসিক/সম্পাদনা : মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত