শিরোনাম

প্রকাশিত : ০১ অক্টোবর, ২০২২, ০৬:০৫ বিকাল
আপডেট : ০১ অক্টোবর, ২০২২, ০৬:০৫ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

আটকে রেখে নির্যাতন, সন্ত্রাসী সুমন গ্রেপ্তার

আকাশ আহম্মেদ সোহেল, মাদারীপুর : রাজৈরে এক যুবককে দুইদিন ঘরে আটকে রেখে অমানুষিক নির্যাতনের অপরাধে কুখ্যাত সন্ত্রাসী সুমন শেখকে (৩০) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার (১ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার কদমবাড়ি বাজার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সুমন উপজেলার টেকেরহাটের ঘোষালকান্দি গ্রামের মৃত ফজলু শেখের ছেলে। সে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আল-আমিন মোল্লার ক্ষমতাবলে এলাকায় দীর্ঘদিন যাবত টর্চার সেলের মাধ্যমে নির্যাতন কার্যক্রম চালিয়ে আসছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

পুলিশ, ভুক্তভোগী ও স্থানীয়রা জানায়, গত (২৮ সেপ্টেম্বর) বুধবার উপজেলার ঘোষালকান্দি গ্রামের মৃত খোকন শেখের ছেলে রাজমিস্ত্রি শ্রমিক রবিউল শেখ(২৮) জায়গা বিক্রি করবে বলে ক্রেতার কাছে থেকে ১ লক্ষ ১০ হাজার টাকা বায়না নেয়।

তখন নজর পড়ে সুমনের। পরে ভুয়া ইজিবাইক চুরির অপবাদ দিয়ে রবিউলকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায় সুমন ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী।

এসময় তাকে ফাঁকা জায়গায় নিয়ে বেধড়ক মারপিট করে তার সাথে থাকা টাকা ছিনিয়ে নেয়। এরপর রবিউলকে পার্শ্ববর্তী গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার যাত্রাবাড়ি এলাকার একটি পরিত্যাক্ত ঘরে আটকে রেখে অমানুষিক নির্যাতন চালায়।

অনেক খোজাখুজি শেষে দুইদিন পর শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় সেনদিয়া ঘাট পুলিশ ফাড়ির সহযোগিতায় তাকে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় উদ্ধার করে রাজৈর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনার বিচার চেয়ে শনিবার (১ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে টেকেরহাট বাসস্ট্যান্ডে মানববন্ধন করে এলাকাবাসী।

এর এক ঘন্টার মধ্যে সুমনকে গ্রেপ্তার করে রাজৈর থানার পুলিশ। স্থানীয় কালু, মিলন, শাহেন সহ একাধিক ব্যক্তি জানায়, সন্ত্রাসী সুমন এর আগেও এরকম অনেক ঘটনা ঘটিয়েছে।

কিন্তু ভয়ে কেউ মুখ খোলেনি। সে এলাকায় বড় মাদক ব্যবসায়ী হওয়ায় সত্ত্বেও কেউ কিছু বলতে সাহস পায় না। এছাড়া টেকেরহাট সেতুর নিচে তার একটি টর্চার সেল রয়েছে বলে জানায় এলাকাবাসী।

সন্ত্রাসী সুমন জানায়, রবিউল ইজিবাইক চুরি করেছে। স্বীকার না করায় সবার সাথে ভাই হিসেবে আমিও তাকে লাঠি দিয়ে কয়েকটি বাড়ি দিছি।

ওসি আলমগীর হোসেন জানান, মানববন্ধনের এক ঘন্টার মধ্যে তাকে আমরা গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছি। আসামি বর্তমানে থানা হাজতে আছে। পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  • সর্বশেষ