প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ময়মনসিংহে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যক্রমে বিভাগীয় শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান হলেন আতাউর রহমান হাদী

আল আমীন: [২] জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন করণ এবং জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যক্রম দক্ষতার সাথে সম্পাদনের স্বীকৃতিস্বরূপ জাতীয় পর্যায়ে ময়মনসিংহ বিভাগের “শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান” মনোনীত হয়েছেন ময়মনসিংহ জেলার ফুলবাড়িয়া উপজেলার ৫নং দেওখোলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আতাউর রহমান হাদী।

[৩] ৬ অক্টোবর বুধবার জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর কাকরাইলে এ জাতীয় জন্ম মৃত্যু নিবন্ধন দিবসে শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যানের পুরস্কার নিবেন।

[৪] ময়মনসিংহের স্থানীয় সরকারের উপ পরিচালক একেএম গালিভ খান বলেন, সঠিকভাবে জন্ম নিবন্ধন অতি গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। জনকল্যাণমুখী নীতিমালা প্রণয়ন এবং সঠিক তথ্যের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য বিধি মোতাবেক সঠিক জন্ম তারিখ সম্বলিত একটি জন্ম সনদ নাগরিকের জন্য অপরিহার্য।

[৫] জন্ম ও মৃত্য নিবন্ধন আইন, ২০০৪ (২০০৪ সনের ২৯ নং আইন) এ জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনকে সার্বজনীন ঘোষণা করে জাতি, ধর্ম, বর্ণ, গোষ্ঠী, লিঙ্গ নির্বিশেষে সবার জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন নিবন্ধকের জন্য বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

[৬] জানা গেছে, জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনে সারাদেশের চিত্র আশাব্যাঞ্জক নয়। তিনি ময়মনসিংহে প্রবর্তন করেন জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনে ময়মনসিংহ উল্লেখযোগ্য। ময়মনসিংহের সব উপজেলায় এই কার্যক্রমকে তরান্বিত করার লক্ষে কাজ করছে স্থানীয় প্রশাসন।

[৭] জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক জানান সঠিক জন্ম তারিখ সম্বলিত জন্মসনদ একজন মানুষের রাষ্ট্রীয় অধিকার এবং নাগরিক হিসেবে অত্যন্ত সম্মানের একটি দলিল। এই কাজ সম্পাদনে গুরুত্বসহকারে সহজে সেবা প্রদানের লক্ষে কাজ করে যাচ্ছি।

সর্বশেষ