প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বার্সেলোনায় অনুশীলনের সময় মেসি ছিলেন স্বৈরাচারী, বললেন কোচ রোনাল্ড কোম্যান

স্পোর্টস ডেস্ক: [২] মেসির সামর্থ্য আগে থেকেই জানা ছিল রোনাল্ড কোম্যানের। কিন্তু বার্সার ডাগআউটে আসার পর যেন নতুন করে চিনেছিলেন এই ফুটবল বিস্ময়কে। ভয়েটবল ইন্টারন্যাশনালকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, আমি জানতাম মেসি কতোটা ভালো। কিন্তু চোখের সামনে প্রতিদিন তা দেখতে পাওয়াটা সত্যিই বিশেষ কিছু। পরিস্থিতি বিবেচনা, চাপের মুখে বলের দখল রাখা, বলের গতি নিয়ন্ত্রণ, গোল করা- একজন ফুটবলারকে আপনি যা কিছু শেখাতে চাইবেন তার সবকিছুতেই মেসি পাবেন একদম দশে দশ। আর এটা মোটেও স্বাভাবিক না। বরং অনেক বেশি অস্বাভাবিক।

[৩] কোম্যান আরও বলেন, অবশ্যই মেসির আশেপাশে ছিল দারুণ কিছু ফুটবলার। কিন্তু এটাও ঠিক যে, মেসি ছিল বলেই সবাইকে আরও বেশি ভালো মনে হতো। এটা কোনো সমালোচনা নয়, পর্যবেক্ষণ। বার্সা কোচ বলেন, ফিনিশিং নিয়ে কাজ করার সময় অনেক খেলোয়াড়ই সহজভাবে শুরু করতো, মজা করতো। কিন্তু মেসি তেমন না। সে শুরু থেকেই পার্ফেক্ট। কাউকে দেখানোর জন্য সে কিছুই করতো না। যা কিছু কাজের, জয়ের জন্য যা কিছু দরকার সে সবই করতো মেসি।

[৪] বার্সার অনুশীলনে রন্ডো খেলার (মাঝখানে একজনকে রেখে পাস দেয়ার খেলা) কথা মনে করিয়ে কোম্যান বলেন, যদি টানা ২০ বারের বেশি বল পাস দেয়া হয়ে যেতো তবে মাঝে দাঁড়ানো ফুটবলারকে বাড়তি একবার দৌড়াতে হতো। টানা তিনবার এ ঘটনা ঘটলে সব খেলোয়াড় দুই সারিতে দাঁড়াতো এবং যারা ব্যর্থ হয়েছে তাদের মাথায় চাটি মেরে যেতো। মেসিকে একবার জিজ্ঞেস করেছিলাম, এমনটা তার সাথে কতোবার ঘটেছে। সে বলেছিল, একবার। আমি অবাক হয়ে ভাবি, এতোগুলো বছরে মাত্র একবার। মেসি দলে থাকতে সিনিয়র খেলোয়াড়রা কখনো জুনিয়রদের কাছে হারেনি। একবারই হেরেছিল। আর এ নিয়ে মেসি ভয়ানক রেগে ছিল ৭ দিন। সে সত্যিই এক স্বৈরাচারী। মার্কা/ যমুনাটিভি

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ