প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলের আবাহনী বনাম বসুন্ধরার ম্যাচ ড্র

নিজস্ব প্রতিবেদক : [২] তপু বর্মণের আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে যায় আবাহনী লিমিটেড। আবার এই ডিফেন্ডার শাপমোচন করতেও সময় নেননি। হেডে লক্ষ্যভেদ করে বসুন্ধরা কিংসকে সমতায় ফেরান। শেষ পর্যন্ত ১-১ স্কোরলাইন রেখে দুই জায়ান্টের ম্যাচটি শেষ হয়েছে। আর এরই সঙ্গে এবারের মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলের শেষটাও দেখা হয়ে গেলো।

[৩] বসুন্ধরা কিংস ২৪ ম্যাচে দ্বিতীয় ড্রতে ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থানে থেকে লিগ শেষ করলো। আবাহনী সমান ম্যাচে অষ্টম ড্রতে ৪৭ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে থাকছে।

[৪] লিগের প্রথম পর্বে বসুন্ধরা কিংসের কাছে ৪-১ গোলে হেরেছিল আবাহনী। এবার লড়াই করে আগে গোলও পেয়েছে। কিন্তু জয়ের মুখ দেখা হয়নি।

[৫] সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ম্যাচের প্রথমার্ধের শুরু থেকে আবাহনীর দাপট। বল দখলে প্রায় সমানে সমান হলেও মারিও লেমসের দল ম্যাচ শুরুর ২ মিনিটে প্রথম আক্রমণ শানায়। যদিও অগাস্তোর জোরালো শট পোস্টের বাইরে দিয়ে যায়।

[৬] ২৮ মিনিটে আবাহনী এগিয়ে যায়। ব্রাজিলিয়ান অগাস্তোর ক্রসে তপু বর্মণ ক্লিয়ার করতে গিয়ে নিজেদের জালে জড়িয়ে দেন বল।

[৭] দুই মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করতে পারতো আবাহনী। সানডে বক্সে ঢুকে গোলকিপার জিকোকে একা পেয়েও লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন। ৩৪ মিনিটে অগাস্তোর ফ্রি কিকে সানডের হেড ক্রসবারের ওপর দিয়ে গেলে ব্যবধান বাড়েনি।

[৮] বসুন্ধরা গোল শোধ দেওয়ার চেষ্টা করেছে। ৩৭ মিনিটে অস্কার ব্রুজনের দল সফলও হয়। রবিনিয়োর ফ্রি কিকে তপু বর্মণ লাফিয়ে উঠে হেডে গোল করে স্বস্তি এনে দেন।

[৯] ৪৫ মিনিটে ফের্নান্দেজের ক্রসে বিশ্বনাথের হেড গোলকিপার সোহেল বাঁ দিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে রুখে দিয়ে দলকে ম্যাচে রাখেন। যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে ফের্নান্দেজের বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া শট গোলকিপার সোহেল এবার ডান দিকে ঝাঁপিয়ে প্রতিহত করেন।

[১০] বিরতির পর দুই দলই সুযোগ পেয়েছে। কিন্তু কেউই ব্যবধান বাড়াতে পারেনি। ৬৫ মিনিটে ফের্নান্দেজের প্রচেষ্টা টুটুল হোসেন বাদশা নস্যাৎ করে দেন। ৮৫ মিনিটে রায়হানের লম্বা থ্রো-ইন থেকে বেলফোর্টের হেড গোলকিপার জিকো ঝাঁপিয়ে রুখে দেন।

[১১] শেষ ম্যাচটি জয় দিয়ে শেষ করতে পারলো না বসুন্ধরা কিংস। আবাহনীর সঙ্গে এই প্রথম ড্র করলো তারা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ