প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সরকারি চাকরি প্রার্থীদের বয়স ২১ মাস ছাড় দেওয়া হচ্ছে

টিএম হুদা: [২] করোনাকালে সাধারণ ছুটি ও বিধি-নিষেধের কারণে সরকারি চাকরির বিজ্ঞপ্তি নিয়মিত প্রকাশিত হয়নি। ফলে এ সময় চাকরিপ্রত্যাশীরা সরকারি চাকরির নিয়োগ থেকে বঞ্চিত হয়েছে।

[৩] এ কারণে আগে থেকেই চলছিল সরকারি চাকরিতে বয়স বাড়ানোর একটি আন্দোলন। তাই সব মিলিয়ে করোনাকালকে বিবেচনায় নিয়ে আপাতত সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সের ক্ষেত্রে ২১ মাস ছাড় দেওয়ার কথা চিন্তা করছে সরকার। সুত্র : দ্যা ডেইলি ক্যম্পাস

[৪] চাকরিপ্রার্থীদের বয়স ছাড়ের বিষয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন জানান, যে সময় থেকে চাকরির বিজ্ঞপ্তিগুলো হওয়ার কথা কিংবা পরীক্ষা নেওয়ার কথা সেই সময় থেকে কয়েক মাস বয়সে ছাড় পাবেন চাকরিপ্রার্থীরা। সুত্র : দৈনিক ইত্তেফাক

[৫] তিনি আরো বলেন, গত বছরের ২৫ মার্চ থেকে শুরু করে সামনের যেকোনো একটি মাস পর্যন্ত সীমারেখা বেঁধে দেওয়ার চিন্তা চলছে। এই সীমা কত মাস হবে, সেটা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করছে। সুত্র : দ্যা ডেইলি ক্যম্পাস

[৬] জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের বিধি অনুবিভাগের অতিরিক্ত সচিব আবুল কাশেম মো. মহিউদ্দিন বলেন, ‘চাকরির ক্ষেত্রে সরকার সব সময় তরুণদের সুবিধার কথা চিন্তা করে সিদ্ধান্ত নেয়। এর আগেও বয়স ছাড়ের সুযোগ দিয়ে আদেশ জারি করা হয়েছে। এবার নতুন সিদ্ধান্ত আসলেও বয়স ছাড় দিয়ে জারি করা আগের (গত বছরের সেপ্টেম্বরের) আদেশটি বাতিল হবে না। সুত্র : কালের কন্ঠ

[৬] সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত প্রস্তাব তৈরির কাজ চলছে। চলতি সপ্তাহের মধ্যে প্রস্তাবটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে উপস্থাপন করা হতে পারে। প্রধানমন্ত্রী সম্মতি দিলে শিগগিরই তা আনুষ্ঠানিকভাবে জানাবে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

[৭] তবে প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি সাপেক্ষে বয়স ছাড় দেওয়া হলেও এই সুবিধার আওতায় কত দিন পর্যন্ত চাকরির বিজ্ঞাপন দেওয়া যাবে তা স্পষ্ট জানা যায়নি। সুত্র : দ্যা ডেইলি ক্যম্পাস

[৮] করোনাভাইরাসের প্রথম দফায় সাধারণ ছুটির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত চাকরি প্রার্থীদের বয়সের ক্ষেত্রে ছাড় দেয় সরকার। তখন গত ২৫ মার্চ যাদের বয়স ৩০ বছর পূর্ণ হয়েছিল তাদের পরবর্তী ৫ মাস, অর্থাৎ আগস্ট পর্যন্ত সরকারি চাকরিতে আবেদনের সুযোগ দেয়া হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত