প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] টানা বর্ষণে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিভিন্ন গ্রাম প্লাবিত, ২২৫ টি পরিবার নিরাপদ জায়গায় স্থানান্তরিত

ফরহাদ আমিন: [২] কক্সবাজারের টেকনাফে টানা ২৪ঘন্টার ভারী বর্ষণে উপজেলার বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্পের গ্রামাঞ্চলে প্লাবিত হয়েছে।

[৩]এসব প্লাবিত ক্যাম্প এলাকা গুলো হলো-হ্নীলা ইউপি জাদিমোড়া ২৭নম্বর ক্যাম্প,নয়াপাড়া রেজিস্ট্রার ক্যাম্প,হোয়াইক্যং ইউপি উনচিপ্রাং২২নম্বর ক্যাম্পে টানা বৃষ্টিতে প্লাবিত হয়েছে বলে জানা গেছে।

[৪] জানা যায়,টানা ২৪ঘন্টার ভারী বর্ষণের কারণে উপজেলার বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় পানি বেড়ে যায়।এতে করে এসব রোহিঙ্গা ক্যাম্পের গ্রামাঞ্চলের মানুষজন পানিবন্দী হয়ে নানা সমস্যায় পড়েছে।পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় অতি বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে এসব এলাকাগুলো প্লাবিত হচ্ছে মনে করছেন পানিবন্দী হয়ে পড়া এসব পরিবার গুলো।

[৫] জাদিমুড়া ২৭নম্বর ক্যাম্পের বাসিন্দা আনিস বলেন,টানা বৃষ্টির কারণে ক্যাম্পে বিভিন্ন ব্লক পানিবন্দী হয়ে পরেছে।আমার ঘরেও পানি ঢুকেছে।খুবই কষ্টে পরিবার নিয়ে আছি।আমাদের এই কষ্টগুলো কে দেখবে।

 

[৬] শনিবার রাতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ১৬ এপিবিএন অধিনায়ক মোঃ তারিকুল ইসলাম তারিক।তিনি বলেন,গত ২৪ঘন্টার টানা বৃষ্টিতে রোহিঙ্গা ক্যাম্প ২৭নম্বর জাদিমুড়া এর বল্ক-বি/৮,এ১০/,এ১১/,এ১২/প্লাবিত হয়ে বন্যার সৃষ্টি ও ১০০টি পরিবার ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।নয়াপাড়া রেজিস্ট্রার ক্যাম্পে বল্কএইচ ও বক্কর মেম্বারের রাস্তার পার্শ্বে আংশিক প্লাবিত হয়ে ২৫টি পরিবার ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।এছাড়া ২২নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্প উনচিপ্রাং এর বল্কএ,বি ও সি প্লাবিত হয়ে ১০০টি পরিবার ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

[৭] তিনি আরো বলেন,এপিবিএন এবং সিআইসি অফিস কর্তৃক প্লাবিত হওয়া মোট২২৫টি রোহিঙ্গা পরিবারগুলোকে নিরাপদ স্থানে সড়িয়ে নেওয়া হয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে বসবাসরত জনসাধারণকে নিরাপদ আশ্রয়স্থলে চলে আসার জন্য মাইকিং করে অনুরোধ করা হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত