প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১]জিয়াউর রহমানের ‘বীর উত্তম’ খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়ে এখনই কথা বলতে চান না আওয়ামী লীগ নেতারা

সমীরণ রায়: [২] মুক্তিযুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে জিয়াউর রহমানকে রাষ্ট্রীয়ভাবে দেওয়া ‘বীর উত্তম’ খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা)।  এবিষয়ে এখনই কথা বলতে রাজি নয় আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা।

[৩] শীর্ষ নেতারা বলেন, ৭৫’র পরবর্তী জিয়াউর রহমানের ভূমিকা ছিলো স্বাধীনতার বিপক্ষে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডের পর তার যে অবস্থান ছিলো সেটি নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। তবে জামুকা যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সে বিষয়ে আরও জেনে শুনে কথা বলবো।

[৪] আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাব বাতিলের ইস্যুতে আরও বিস্তারিত জেনে কথা বলতে হবে।

[৫] আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আবদুস সবুর বলেন, মুক্তিযুদ্ধে তার একটি ভূমিকা ছিলো। তা নিয়েও প্রশ্ন রয়েছে। তবে ৭৫’র পরবর্তী তার কর্মকাণ্ড সারা বিশ্ব দেখেছে। তিনি অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করেছেন। তার ভূমিকা নিয়ে অনেক প্রশ্ন রয়েছে। তবে জামুকার সিদ্ধান্তের বিষয়ে আরও বিস্তারিত জেনে বলতে পারবো।

[৬] আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলওয়ার হোসেন বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক বঙ্গবন্ধু হত্যার সঙ্গে যিনি প্রত্যক্ষভাবে জড়িত, তার শুধু বীরোত্তাম সনদই নয় মরণোত্তর বিচার করা উচিৎ। একই সঙ্গে জামুকার কাজটি যথাযথ। সম্পাদনা: রায়হান রাজীব

 

 

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত