প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সংসদে রাষ্ট্রপতির বঙ্গবন্ধু স্মারক বক্তৃতা রোববার আবার শুরু, বক্তব্য রাখবেন প্রধানমন্ত্রী

মনিরুল ইসলাম: [২] জাতীয় সংসদে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কর্মময় ও বর্ণাঢ্য জীবনের উপর ২দিন বিরতির পর কাল রবিবার সন্ধ্যা ৬ টায় আবার শুরু হবে। সভাপতিত্ব করবেন স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। কালই হবে সমাপনী আলোচনা। ৫ম দিনের মতো চলবে এই আলোচনা।

[৩] সোমবার (৯ নভেম্বর) সন্ধ্যায় রাষ্ট্রপতি মো আব্দুল হামিদ বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে সংসদে স্মারক বক্তৃতা রাখেন। রাষ্ট্রপতির বক্তৃতার পর আলোচনার জন্য সাধারণ প্রস্তাব আনেন গোপালগঞ্জ-৩ আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য, সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

[৪] সংসদ নেতা শেখ হাসিনা নোটিশ আকারে তার প্রস্তাব উত্থাপনের পর এর উপর বিশেষ আলোচনা শুরু হয় । সংসদ সদস্যরা টানা চারদিন আলোচনা করবেন এবং বৃহস্পতিবার এ প্রস্তাবটি গ্রহণ করা হবে বলে স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশনের প্রথম দিন ৮ নভেম্বর রবিবার সংসদকে জানিয়েছেন।

[৫] প্রস্তাব গৃহীত হবার পরপরই শুরু হয় আলোচনা। আলোচনা সূচনা করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও নোয়াখালী-৫ আসনের সংসদ সদস্য ওবায়দুল কাদের।

[৬] ৪দিন টানা আলোচনার কর্মসূচি ছিলো। সংসদ নেতা সংসদে উপস্থিত বেশি সংখ্যক সদস্যকে আলোচনায় অংশ নেবার সুযোগ দেওয়ায় জন্যই আলোচনার কার্যদিবস বাড়ানো হয়েছে বলে সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা যায়। গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে সংসদের অধিবেশন রবিবার পর্যন্ত ২ দিনের জন্য মুলতবি করা হয়।

[৭] সূত্র জানায়, সংসদের চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরীর কাছে সংসদ সদস্যরা স্মারক বক্তৃতার ওপর আলোচনায় অংশ নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেন। এ বিষয়টি জানার পর সময় বাড়ানো হয় সংসদ নেতার পরামর্শ নিয়ে।

[৮] গত টানা চতুর্থ দিন স্মারক বক্তৃতার ওপর ৫৩ জন সংসদ সদস্য বক্তব্য রেখেছেন। সরকারি দল আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি, বিএনপি, গণফোরামের সদস্যরা আলোচনা করেন। আজ সমাপনী বক্তব্য রাখবেন সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিরোধী দলীয় নেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের।

[৯] গত সেমবার সংসদে প্রস্তাব উপস্থাপনের আগে প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, স্বাধীনতার পর একটি যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ গড়ে তোলার জন্য মাত্র সাড়ে তিন বছর সময় পেয়েছিলেন তিনি। সেই সময়কালে বাংলাদেশের উন্নয়নের সামগ্রিক পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়নের কাজ শুরু করেন তিনি।

[১০] তিনি বলেন, ২০২০ সালে জন্মশতবার্ষিকীতে মুজিববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে তাঁর বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক এবং কর্মময় জীবন ও দর্শনের ওপর জাতীয় সংসদে বিশেষ আলোচনার মাধ্যমে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন করা হউক।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত