প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বগুড়ার নন্দীগ্রাম পৌরসভা নির্বাচন সামনে রেখে মাঠে নেমেছে প্রার্থীরা

জিল্লুর রয়েল : [২] বগুড়ার নন্দীগ্রাম পৌরসভা নির্বাচন সামনে রেখে প্রার্থীরা ভোট প্রার্থনায় মাঠে নেমেছে। মেয়র পদে সম্ভাব্য প্রার্থীর পাশাপাশি কাউন্সিল পদে সম্ভাব্য প্রার্থীরাও শক্তভাবে মাঠে নেমে ভোট প্রার্থনায় ব্যস্ত সময় অতিক্রম করছে। আসন্ন নন্দীগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ৩ জন।

[৩] অপরদিকে বিএনপি মতাদর্শী ৩ জন প্রার্থী থাকলেও মনোনয়ন প্রত্যাশী রয়েছে ১ জন। অন্য ২ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার প্রস্তুতি নিয়েছে।

[৪] মেয়র পদে প্রার্থীরা হলেন, বর্তমান মেয়র কামরুল হাসান সিদ্দিকী জুয়েল, সাবেক মেয়র সুশান্ত কুমার সরকার শান্ত, প্যানেল মেয়র আনিছুর রহমান, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী একেএম ফজলুল হক কাশেম, যুবলীগ নেতা মাহমুদ আশরাফ মামুন ও সাবেক ছাত্রনেতা কামরুল হাসান সবুজ। কামরুল হাসান সিদ্দিকী জুয়েল নন্দীগ্রাম পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি। তিনি গত নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে মেয়র নির্বাচিত হন। সে কারণে তিনি এবারো স্বতন্ত্র প্রার্থী হবেন। সুশান্ত কুমার সরকার শান্ত নন্দীগ্রাম পৌর বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি। তিনি বিএনপির প্রার্থী হয়ে মেয়র পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন। সে কারণে তিনি আবারো বিএনপির প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

[৫] ৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র আনিছুর রহমান নন্দীগ্রাম পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি। তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বিশিষ্ট ব্যবসায়ী একেএম ফজলুল হক কাশেম নন্দীগ্রাম শিল্প ও বণিক সমিতির সহ-সভাপতি ও নন্দীগ্রাম পৌর বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি। তিনি গত নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছিলেন। তিনি এবারো স্বতন্ত্র প্রার্থী হবেন। মাহমুদ আশরাফ মামুন উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচন করার চিন্তা ভাবনা করছে। কামরুল হাসান সবুজ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনিও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার চিন্তা ভাবনা করছে।

[৬] মেয়র ও কাউন্সিলর পদে সম্ভাব্য প্রার্থীরা নির্বাচন সামনে রেখে দল ও নিজেদের অবস্থান তুলে ধরে ভোটারদের নিকট থেকে ভোট প্রার্থনা শুরু করে দিয়েছে। এদিকে ভোটারদের মাঝেও ভোট নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু হয়েছে। আসন্ন নন্দীগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে অনেকটা পরিবর্তনের হাওয়া বইছে। নির্বাচন মানেই জয়-পরাজয় থাকবে। প্রার্থীরাও সেকথা মাথায় রেখে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। এছাড়াও বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট নিয়েও অনেকটা ভাবতে হচ্ছে।

[৮] উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুস সালাম জানিয়েছে, নন্দীগ্রাম পৌরসভার মোট ভোটার সংখ্যা ১৫ হাজার ৮৭৫ জন। আগামী ডিসেম্বর মাসে নন্দীগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনের সম্ভাবনা রয়েছে। আমরা সেদিকটা লক্ষ্য রেখেই নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছি। সম্পাদনা : আরাফাত

সর্বাধিক পঠিত