প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চেলসিকে দুই লেগে বিধ্বস্ত করে কোয়ার্টারে বায়ার্ন

ডেস্ক রিপোর্ট : অনুমেয় ছিল আগেই, শেষ ষোলর দ্বিতীয় লেগের বায়ার্ন মিউনিখ এবং চেলসির মধ্যকার ম্যাচটি অনেকটা নিয়মরক্ষার। শেষ পর্যন্তও হলোও তাই! প্রথম লেগে চেলসির ঘরের মাঠ স্টামফোর্ড ব্রিজে ৩-০ গোলে উড়িয়ে কোয়ার্টারে এক পা দিয়ে রেখেছিল বাভারিয়ানরা। অপেক্ষা ছিল কেবল আনুষ্ঠানিকতা শেষের। এবার ঘরের মাঠ অ্যালিয়েন্স অ্যারেনায় ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের দলকে ৪-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করল বায়ার্ন।

প্রথম লেগের ৩-০ গোলের জয় আর দ্বিতীয় লেগের ৪-১ ব্যবধানের জয়ে দুই লেগ মিলিয়ে ৭-১ ব্যবধানের জয়ে কোয়ার্টার ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করে রবার্ট লেভান্ডোফস্কিরা

হিসাব বলছিল ঘরের অ্যালিয়েঞ্জ অ্যারেনায় সর্বোচ্চ ২-০ গোলের ব্যবধানে হারলেও কোয়ার্টারে চলে যেত বায়ার্ন। তবে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা পোলিশ স্ট্রাইকার লেভান্ডোফস্কির দল গোলশূন্য থাকবে তা অকল্পনীয়। আর টানা ৮ম বুন্দেস লিগা জয়ী দল ঘরের মাঠে জয়ের বিকল্প কিছুই যেন ভাবছিল না। আর তার প্রমাণও মিলল খেলায়।

দুর্দান্ত ফর্মে থাকা রবার্ট লেভান্ডোফস্কির প্রথম গোল করতে অপেক্ষা করতে হয়েছে মাত্র ১০ মিনিট। ম্যাচের ৮ম মিনিটে লেভান্ডোফস্কিকে ডি বক্সের ভেতর ফাউল করায় পেনাল্টি পায় বায়ার্ন। আর স্পট কিক থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন এই পোলিশ স্ট্রাইকার। এর ঠিক ১৪ মিনিট পরে লেভান্ডোফস্কির অ্যাসিস্ট থেকে গোল করে দলকে ২-০’তে এগিয়ে নেন ইভান পেরিসিচ।

যদিও ম্যাচের ২৯তম মিনিট ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিত দেয় চেলসি। হাডসন অডই ম্যানুয়েল নয়্যারকে ফাঁকি দিয়ে বল জালে জড়ালেও ভিএআরে দেখা মেলে অফসাইডে ছিলেন অডই। তাই সে সময় আর ম্যাচে ফেরা হলো না ব্লুজদের। তবে প্রথমার্ধের শেষের ঠিক মিনিট খানেক আগে নয়্যারের ভুলে বল পেয়ে যান টামি আব্রাহাম আর সেখান থেকে বাভারিয়ানদের জালে বল জড়াতে ভুল করেননি এই তরুণ ইংলিশ স্ট্রাইকার। প্রথমার্ধ শেষে ব্যবধান দাঁড়ায় ২-১ গোলের।

প্রথমার্ধের প্রতিচ্ছবিরই যেন দেখা মেলে দ্বিতীয়ার্ধে। যেখানে শেষ করে বিশ্রামে গিয়েছিলেন, সেখান থেকেই শুরু বাভারিয়ানদের। দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম গোলের দেখা পেতে বাভারিয়ানদের অপেক্ষা করতে হয় ম্যাচের ৭৬ মিনিট পর্যন্ত। লেভান্ডোফস্কির দ্বিতীয় অ্যাসিস্ট থেকে টলিসো বায়ার্নের তৃতীয় গোলটি করেন। আর ঠিক মিনিট ছয়েক পরে নিজের দ্বিতীয় গোল করে চেলসির জালে গোলের হালি পূর্ণ করেন লেভান্ডোফস্কি। এবার তার গোলের যোগান দাতা রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ধারে খেলতে যাওয়া আলভারো অদ্রিওজোলা।

শেষ পর্যন্ত আর কোনো গোল না হওয়ায় ৪-১ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে বাভারিয়ানরা। আর দুই লেগ মিলিয়ে ৭-১ ব্যবধানের জয় নিয়ে নিশ্চিত করে কোয়ার্টার ফাইনাল।কোয়ার্টার ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখ মুখোমুখি হবে বার্সেলোনার। আগামী শনিবার (১৫ আগস্ট) তৃতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে লড়বে দুই দল। ঘরের মাঠ ক্যাম্প ন্যুতে নাপোলিকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে বার্সেলোনা।
সূত্র- সারাবাংলা

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত