প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] করোনায় নিহত ব্যক্তির দেহে ৩ ঘণ্টা পর ভাইরাসের কার্যকারিতা থাকে না: ডা. নাসিমা সুলতানা

শাহীন খন্দকার: [২] স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এক বিবৃতিতে বুধবার (৩জুন) কোভিড-১৯ রোগে মৃত ব্যক্তির সৎকারের বিষয়ে দিক-নির্দেশনা দেন। তিনি নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনে বলেন-করোনা (কোভিড-১৯) রোগে মৃতব্যক্তির দেহ নিরাপদভাবে দাফন/সৎকার বা ব্যবস্থাপনার নির্দেশনা বা এস ও পি স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ওয়েব সাইটে (www.dghs.gov.bd) পাওয়া যায়। তিনি বলেন, মৃতদেহ নিজ নিজ ধর্মীয় বিধি অনুযায়ী সতর্কতা অবলম্বন করে দাফন এবং সৎকার করা যায়।

[৩] নিয়মানুযায়ী মৃতদেহের সকল আনুষ্ঠানিকতা শেষে বডিব্যাগে এবং বডিব্যাগ না পাওয়া গেলে পলিথিনে মুড়িয়ে মনোনীত কবরস্থান বা পারিবারিকভাবে নির্ধারিত স্থানে দাফন করা যায়। বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা বলেছে যে, এখন পর্যন্ত এটি প্রমাণিত হয় নাই যে, মৃত ব্যক্তির কাছ থেকে অ্ন্য ব্যক্তির দেহে কোভিড-১৯ ভাইরাসটি ছড়িয়েছে। মৃত দেহ সৎকার করতে তিন/চার ঘণ্টা লেগে যায়, তিন ঘণ্টা পরে মৃত দেহে এই ভাইরাসের কার্যকারিতা থাকে না। সেই জন্য মৃত দেহ থেকে এই ভাইরাস ছড়ানোর কোন সম্ভাবনা নেই।

[৪] ডিজি বলেন, এ জন্য দাফনের সময় অবশ্যই সতর্কতা অবলম্বন করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে যে নির্দেশনা দেয়া আছে, সেই নির্দেশনা অনুযায়ী পারিবারিক কবরস্থানে দাফন ক্রিয়া সম্পন্ন করা যায়। দাফনের ব্যাপারে কোভিড ডেডিকেটেড কবরস্থান নিয়ে যে কথা হচ্ছে, এই বিষয়টি বিবেচনায় নেয়ার দরকার নেই। পারিবারিক কবরস্থানেই দাফন করা যাবে এবং অন্য ধর্মাবলম্বীদের নিজ নিজ ধর্ম অনুযায়ী মৃত দেহ সৎকার করা যাবে।

সর্বাধিক পঠিত