প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সেই দক্ষিণ আফ্রিকায় ওয়ার্নার সম্মান আশা করলেও করেন না স্মিথ

স্পোর্টস ডেস্ক : ২০১৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কেপটাউন টেস্টে বল বিকৃতি করার কারণে ক্রিকেট থেকে এক বছরের নিষেধাজ্ঞায় ছিলেন স্টিভ স্মিথ এবং ডেভিড ওয়ার্নার। আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি আবারও কেপটাউনে খেলতে নামবেন তারা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে প্রোটিয়া সমর্থকদের কাছ থেকে সম্মান প্রত্যাশা করেছেন ওয়ার্নার। অপরদিকে সম্মানের প্রত্যাশা করছেন না স্মিথ, চ্যালেঞ্জ মেনে নিতে পুরোপুরি প্রস্তুত তিনি।

স্মিথ বলেন, আগে অবশ্য তারা অতিথিপরায়ণ ছিল। যদিও এটা নিয়ে এখন আর কিছু ভাবছি না। ল্যাঙ্গার যেমনটা বলেছেন ওরকম করেই বলব, আমরা এসব প্রস্তুতি অ্যাশেজ খেলার সময় ইংল্যান্ডে নিয়ে এসেছি। যখন আমি ব্যাটিং করি, তখন আমি এসবে তাকাই না। আমি এসব তেমন শুনতে চাই না। যখন ফিল্ডিং করি, তখন কিছুটা কানে আসে। কিন্তু এগুলো শুধুই শব্দ। এগুলো আমার কোনো ক্ষতি করতে পারে না।

কয়েকদিন আগে অস্ট্রেলিয়ার একটি রেডিওকে ওয়ার্নার বলেছিলেন, ব্যক্তিগতভাবে আমি এসবের কিছুই মনে রাখিনি। আমি সেখানে যাবো এবং রান করে দল জেতানোর চেষ্টা করব। নিজেদের ভালো অবস্থানে নিয়ে আসার চেষ্টা করব। পরিস্থিতি আমাদের অনুকূলে থাকবে না এটাই স্বাভাবিক। তবে দক্ষিণ আফ্রিকায় আমরা সম্মানের প্রত্যাশা করব। এর আগেও এখানে যখন ছিলাম তখন আমাদের দারুণ আপ্যায়ন করা হতো।

২০১৯ সালের ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের আগমুহূর্তে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরেন স্মিথ ও ওয়ার্নার। এরপর থেকে বেশ কয়েকবার প্রতিপক্ষের দুয়োর শিকার হন এই দুজন। সেসবের তোয়াক্কা না করেই বিশ্বকাপে অসাধারণ পারফরম্যান্স করেন ওয়ার্নার। বিশ্বকাপের পর চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইংল্যান্ডের মাটিতে একের পর এক নজরকাড়া ইনিংস খেলেন স্মিথও।

কেপটাউনে স্মিথ-ওয়ার্নারের সঙ্গে বল বিকৃতিতে জড়িত ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট ওপেনার ক্যামেরন বেনক্রফট। তবে এই ঘটনায় তার ভূমিকা বেশি না থাকায় তাকে নয় মাসের নিষেধাজ্ঞা দেয় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। সূত্র : ক্রিকফ্রেঞ্জি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত