প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

লাব্বাইক ধ্বনিতে মুখরিত আরাফাতের ময়দান

আমিন মুনশি : বিশ্বের কমপক্ষে ২০ লাখ হজযাত্রী আজ দু’টুকরো সাদা কাপড়ে নিজেকে মুড়িয়ে নিয়ে আল্লাহর দরবারে হাজিরা দিচ্ছেন। এক সুরে তারা মুহুর্মূহু উচ্চারণ করছেন ‘লাব্বাইক  আল্লাহুম্মা লাব্বাইক, লা শারিকা লাকা লাব্বাইক, ইন্নাল হামদা, ওয়ান নিয়ামাতা, লাকা ওয়াল মুল্ক, লা শারিকা লাকা।’ অর্থাৎ- হাজির হে আল্লাহ হাজির, আপনার মহান দরবারে হাজির। আপনার কোনো শরিক নেই। সব প্রশংসা, নিয়ামত এবং সব রাজত্ব আপনারই।

আজ ভোর থেকেই আরাফাতের ময়দানে ঢল নেমেছে হজযাত্রীদের। সকালের আলো ফোটার আগেই সেখানে সমবেত হওয়া শুরু করেছেন তারা। এর আগে গতকাল তারা তাঁবুর শহর বলে পরিচিত ঐতিহাসিক মিনায় সমবেত হন। সেখানে ইবাদত বন্দেগিতে সময় অতিবাহিত করেন।

আরাফাতের ময়দানে হাজিগণ হজের মূল খুতবা এবং জোহর ও আসর নামাজ একসঙ্গে আদায় করবেন। সন্ধ্যায় মুজদালিফায় গিয়ে মাগরিব ও এশার নামাজ আদায় করবেন এবং পাথর সংগ্রহ করবেন। রাতে মুজদালিফায় খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করবেন হাজিরা। এদিকে মিনায় বর্তমানে তাপমাত্রা রয়েছে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাংলাদেশের তুলনায় এ তাপমাত্রা অনেক বেশি। কিন্তু যারা গত কয়েকদিন ধরে মক্কায় অবস্থান করছেন তাদের জন্য এ তাপমাত্রা খুব বেশি না। মক্কায় তাপমাত্রা ৪৮ থেকে ৫০ পর্যন্ত ওঠানামা করছে প্রায়ই।

মিনায় হাজিরা নির্দিষ্ট তাঁবুতে ইবাদত-বন্দেগি করে সময় পার করছেন। এখানে তারা একদিন থেকে ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করবেন। এটা মোস্তাহাব আমল। আর মিনায় অবস্থান করা সুন্নত। তবে মিনার তাঁবুগুলো শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। চলতি বছর মিনার তাঁবুতে নতুন প্রযুক্তির ৪৫ হাজার ৬০০টি নতুন শীতাতপ যন্ত্র বসানো হয়েছে। নতুন এই এয়ার কন্ডিশন যন্ত্রগুলো তাঁবুর তাপমাত্রাকে নিরবিচ্ছিন্নভাবে ২৪ ঘণ্টা ঠাণ্ডা রাখতে সক্ষম। মিনায় দীর্ঘসময় কাটাতে হয়। তাই প্রত্যেক ওয়াক্ত নামাজের জামাতের পর ধর্মীয় তালিম, বয়ান, জিকির-আজকার, কোরআন তেলাওয়াত, নফল নামাজ ও মোনাজাতে মশগুল আছেন হাজিরা।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার এশার নামাজের পর থেকে মক্কায় অবস্থানরত হজযাত্রীরা নিজ নিজ কামরা কিংবা মসজিদে হারাম থেকে হজের ইহরাম বেঁধে মিনায় পৌঁছান। মিনায় যাত্রার মধ্য দিয়ে হজের মূল কাজ শুরু হয়, যা শেষ হবে ১২ জিলহজ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত