প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অভিবাসনপ্রত্যাশী শিশুদের আটকের জেরে মার্কিন সীমান্ত নিরাপত্তা প্রধানের পদত্যাগ

সান্দ্রা নন্দিনী : ভারপ্রাপ্ত মার্কিন শুল্ক ও সীমান্ত নিরাপত্তা প্রধান জন স্যান্ডার্সকে মাত্র দুইমাস আগে এই পদে নিয়োগ করা হয়। মঙ্গলবার একাধিক মার্কিন গণমাধ্যমে তার লেখা একটি চিঠি প্রকাশিত হয় যেখানে স্যান্ডার্স নির্দিষ্ট কোনও কারণ উল্লেখ না করেই জানান, ভারপ্রাপ্ত কমিশনার পদ থেকে আগামী ৫ জুলাই পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। বিবিসি, রয়টার্স।

তবে বিশ্লেষকরা বলছেন, টেক্সাসের অতিব্যস্ত বর্ডার পেট্রল ফ্যাসিলিটির ডিটেনশন সেন্টারে অভিবাসনপ্রত্যাশী মা-বাবার শিশুদের মানবেতর জীবনযাপন নিয়ে সমালোচনাই স্যান্ডার্সের পদত্যাগের কারণ। এর আগে আইনজীবী, চিকিৎসক ও মানবাধিকারকর্মীদের একটি দল ডিটেনশন সেন্টারটি পরিদর্শন করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেন। সোমবার প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, সেখানে অন্তত ২৫০টি শিশুকে আটকে রাখা হয়েছে। যদিও মঙ্গলবার মার্কিন কাস্টমস এন্ড বর্ডার প্রোটেকশন-সিবিপি’র এক কর্মকর্তা জানান, সেখানে বড়জোর ১শ’ শিশুকে পাঠানো হয়েছে।

পরিদর্শক দলের প্রধান হিউম্যান রাইটস ওয়াচের গবেষক ক্লারা লং জানান, ‘আমরা সেখানে রুক্ষ চুল, মাটিলাগা প্যান্ট ও কাশতে থাকা ৩বছরের শিশুকেও দেখেছি যার চোখে ছিলো চরম বিষণ্নতা। ওই খাঁচায় বন্দি অনেক শিশু আমাদের বলেছে সেখানে তাদের নিয়মিত গোসল কিংবা পরিষ্কার কাপড়-চোপড় দেওয়ার কোনও ব্যবস্থা নেই। এমনকী অনেকে জানিয়েছে তারা সপ্তাহের পর সপ্তাহ গোসল করেনি এবং তাদের সাবান ব্যবহারের অনুমতি নেই।’

এরপর থেকে সীমান্তে থাকা ডিটেনশন সেন্টারের পরিস্থিতি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় ওঠে। ধারণা করা হচ্ছে, এর জেরেই পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নেন স্যান্ডার্স।

এদিকে, সাংবাদিকদের মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, তিনি স্যান্ডার্সকে পদত্যাগ করতে বলেননি। তবে তিনি জানতেন ওই পদে পরিবর্তন ঘটতে চলেছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত