প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কর্তাব্যক্তিদের টনক নড়বে কবে, সেই অপেক্ষায় দিন গুনছেন বাইশগ্রামের মানুষ

নুর নাহার : ঢাকার নিকটে সিটি করপোরেশনের সীমানা থেকে মাত্র ১০০ গজ দূরত্বে অবস্থিত মিরপুরের পাশে তুরাগ নদীর কাউন্দিয়া ইউনিয়ন। ঢাকার নিকটবর্তী এলাকা হলেও জীবনযাত্রার ব্যবধান আকাশপাতাল। চারপাশে নদীবেষ্টিত বাইশগ্রামের মানুষের চলাচলে একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে নৌকা। প্রায় লক্ষাধিক মানুষের স্বপ্ন রুপ নিয়েছে দুঃস্বপ্নে, একটি ব্রিজের অভাবে। স্থানীয়রা জানান আশ্বাস মিলেছে অনেকবার। কিন্তু ব্রিজের স্বপ্ন পূরণ হয়নি দীর্ঘদিনেও। স্থানীয় সংসদ সদস্যরা বলছেন খুব তাড়াতাড়ি এই সমস্যার সমাধান হবে। নিউজ ২৪ সংবাদ।

ঢাকার পাশে হওয়ার পরও বাইশগ্রামের সবকিছুই যেনো থামিয়ে দিয়েছে মাঝের তুড়াগ নদী। মিরপুর বেড়িবাদ থেকে মাত্র ৩০০ গজ দূরত্ব। তাদের বেশিরভাগ কাজের জন্য নদী পার হয়ে মূল ঢাকায় আসতে হয়। ফলে ভোগান্তি নিয়ে পথ চলতে প্রতিদিন।
স্থানীয়রা বলেন, ঢাকার পাশের এলাকা আর এইখানে ব্রিজ নাই। এর মতো দুর্ভাগ্য কারো নাই। রাতবিরাতে বৃষ্টিবাদলে নৌকা পাওয়া যায়না, এভাবে চলতে আমাদের অনেক কষ্ট হয়। আমাদের ব্রিজ করে দিলে সবকিছুতেই উন্নতি করতে পারবো।

কাউন্দিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আতিকুর রহমান বলেন, দেড় লাখ মানুষের একটাই দাবি হচ্ছে একটি ব্রিজ। তবে এর প্রাথমিক কার্যক্রম শেষ হয়েছে। এলজিইডি জানিয়েছে, যে তারা একটি নকশা পেলেই কার্যক্রম শুরু করবে।
সরকার দলীয় স্থানীয় সংসদ সদস্য আসলামুল হকের কাছে প্রশ্ন ছিলো, সরকারের নানামুখি এতো উন্নয়নের মধ্যেও একটি মাত্র ব্রিজ কেনো এখনো করা সম্ভব হয় নি ?

আসলামুল হক বলেন, এখান দিয়ে একটি হাইওয়ে এবং মেট্টোরেলের কাজ হবে। সুতরাং এইসব কাজ সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত ব্রিজের টেন্ডার করা যাচ্ছে না। কবে সরকারের কর্তাব্যক্তিদের টনক নড়বে সেই অপেক্ষায় দিন গুনছেন বাইশগ্রামের মানুষ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত