প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বেশি দর্শক টানতেই ইংল্যান্ডে ১০০ বলের টুর্নামেন্ট: অ্যান্ড্রু স্ট্রস

ইংলিশ কাউন্টি ক্রিকেটে তখন দিনে দিনে দর্শক কমতির দিকে যাচ্ছিল। সেই হার এমনই ছিল যে তা ইংলিশ ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থার কর্মকর্তাদের মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়াল। সমাধান হিসেবেই টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটের ভাবনা এলো। যা সফলতা পাওয়ার পর ২০০৫ সালে শুরু হলো আন্তর্জাতিক টি-টুয়েন্টি।
১৩ বছর পর ২০১৮ সালে দাঁড়িয়ে বলতে হয় টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটই এখন দর্শকদের কাছে সবচেয়ে বড় আকর্ষণ। কিন্তু এখানেই থামছে না। ক্রিকেটকে এবার আরো ছোট করে ১০০ বলের খেলায় নামিয়ে আনতে চায় ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। ২০২০ সাল থেকে ইংল্যান্ডের ঘরোয়া ক্রিকেটে শুরু হয়ে যাবে এই সংস্করণও।
জন্মলগ্ন থেকেই ক্রিকেট নানাভাবে পরিবর্তনের ছোঁয়া পেয়েছে। শুধু টেস্ট ক্রিকেট থেকে ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টিসহ এখন সেটির মোট তিনটি ফরম্যাট। তবে ক্রিকেটকে এতো এতো পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য সমালোচিতও হতে হয়েছে খুব। ইসিবি’র ১০০ ওভারের ক্রিকেটের চিন্তা প্রকাশ্যে আসতেই সেটিরও নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে বেশ। তবে ইংলিশ ক্রিকেটের পরিচালক ও সাবেক অধিনায়ক অ্যান্ড্রু স্ট্রস বলছেন, নতুন দর্শকদের কাছে ক্রিকেটকে সহজবোধ্য করতেই এই উদ্যোগ নিতে চায় তারা, ‘আমরা নতুন দর্শক তৈরির চেষ্টা থেকে এই পদক্ষেপ নিয়েছি। ক্রিকেটের একেবারে পাড় ভক্ত নয় এমনদেরও আমরা আকৃষ্ট করতে চাই। আমরা ক্রিকেটকে খুবই সহজবোধ্য করতে চাই তাদের জন্য।’
ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডেরই চিন্তাভাবনার ফসল টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট এখন জনপ্রিয়তার শীর্ষে। এও বলতে হয় যে ক্রিকেটের নতুন দর্শক তৈরি করতে ক্রিকেটের এই সংস্করণে ভূমিকা অনস্বীকার্য। তারপরও অনেককে এখনও ক্রিকেট টানে না। স্ট্রসের কথায় ফুটে উঠল সেই তাদেরকে টার্গেট করছে ইসিসি, ‘টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট অবিশ্বাস্যরকম সফল। এটা অনেক শক্তিশালী সমর্থক প্রতিষ্ঠিত করেছে। আমরা দর্শক চাই কিন্তু একটু ভিন্ন দর্শকদেরও। যারা সামান্য ভিন্নতা চায়।’
ভিন্নতা বলতে টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটও এখন সময়সাপেক্ষ খেলা হয়ে যাচ্ছে। সেই সময়ের দৈর্ঘ্য কমিয়ে আনার চিন্তা থেকে নতুন আরেকটি সংস্করণ, ‘টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটও দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর ফরম্যাট হয়ে গেছে। এটি বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় চার ঘণ্টারও বেশি সময়জুড়ে হচ্ছে।’ অথচ ফুটবল ম্যাচ শেষ হয়ে যাচ্ছে ৯০ মিনিটে। ইসিবি চাচ্ছে এমন কিছু যাতে বাচ্চারাও খেলা দেখে তাড়াতাড়ি ঘুমাতে যেতে পারে।
১০০ বলের ক্রিকেটে ১৫ ওভার হিসেব হবে ৬ বলের ঐতিহ্য মেনে। শুধুমাত্র শেষের ওভারটি হবে ১০ বলের। টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটের চেয়ে এটি ২০ বল কম। ৮ দল নিয়ে ইংল্যান্ডের ঘরোয়া ক্রিকেটে শুরু হবে এটি। শহরভিত্তিক টুর্নামেন্ট করতে চায় ইসিসি।
সূত্র : বিবিসি স্পোর্টস

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত