শিরোনাম
◈ ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞে চুপ থেকে বিএনপি-জামায়াত গাজায় গণহত্যার পক্ষে অবস্থান নিয়েছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ বঙ্গবন্ধু জাতিসংঘেরও ১৫ বছর আগে শিশু আইন প্রণয়ন করেন: আইনমন্ত্রী  ◈ বিপিএলের ফাইনাল ম্যাচের সময় চূড়ান্ত করলো বিসিবি ◈ সাবেক স্বামীর দেওয়া আগুনে দগ্ধ চিকিৎসক লতা মারা গেছেন ◈ সরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে ঔষধ-পত্র ও চিকিৎসা সামগ্রী প্রদানের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী ◈ বিদ্যুতের দাম বাড়ছে ৮.৫০ শতাংশ, ফেব্রুয়ারিতেই কার্যকর ◈ ২ দিনের রিমান্ড শেষে ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ কারাগারে ◈ বর্তমানে মত প্রকাশের স্বাধীনতার ছিটেফোটাও নেই: রিজভী ◈ রমজানে আল-আকসা খোলা রাখতে ইসরায়েলের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের আহ্বান ◈ ৪২৪ কোটি টাকার তেল-ডাল-গম কিনছে সরকার

প্রকাশিত : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০৬:০৬ বিকাল
আপডেট : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০৭:৪৫ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

জ্যাকের সেঞ্চুরি ও মঈনের হ্যাটট্রিকে বড় জয় কুমিল্লার

ফয়সাল আহমেদ: কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের দেওয়া রানের পাহাড় তাড়া করতে নেমে শুরুটা দারুণ করেছিল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। তবে কুমিল্লার পাহাড় টপকানো সম্ভব হয়নি তাদের। মঈন আলির হ্যাটট্রিকে নির্ধারিত ওভার শেষ হওয়ার আগেই ১৬৬ রানে গুটিয়ে যায় বন্দরনগরীর দলটি। ফলে ৭৩ রানের বড় জয় পায় কুমিল্লা।

মঙ্গলবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ২৩৯ রান সংগ্রহ করে কুমিল্লা। দলের হয়ে অপরাজিত সর্বোচ্চ ৫৩ বলে ১০ ছক্কা ও ৫ চারে ১০৭ রান করেছেন উইল জ্যাক। এ ছাড়া ফিফটি পেয়েছেন অধিনায়ক লিটন ও মঈন আলী। লিটন দাস ৩১ বলে ৬০ ও মঈন আলী ২৪ বলে ৫৩ রান করেছেন।

এই তিন ব্যাটারের রানে ভর করে কুমিল্লা বিপিএল ইতিহাসে যৌথভাবে সর্বোচ্চ দলীয় রানের রেকর্ড করে। এর আগে ২০১৯ সালে বিপিএলে রংপুর রাইডার্স ৪ উইকেটে ২৩৯ রান করেছিলেন।

২৪০ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দুর্দান্ত শুরু করেছিল চট্টগ্রামের দুই ওপেনার তানজিদ হাসান তামিম ও জশ ব্রাউন। উদ্বোধনী জুটিতে তুলেছেন ৮০ রান। ২৪ বলে ৪১ রান করে তামিম ফিরলে ভাঙ্গে এই জুটি। আরেক ওপেনার ব্রাউন করেছেন ৩৬ রান।

এরপর মিডল অর্ডার সৈকত আলী দলের হাল ধরেন। বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে ১১ বলে ৩৬ রানের ইনিংস কেবলই ব্যবধান কমিয়েছে। সৈকত সাজঘরে ফেরার পর বাকিরা আসা-যাওয়ার মধ্যেই ইনিংস শেষ হয়ে যায়। ফলে কুমিল্লা ৭৩ রানে জয় পায়।

কুমিল্লার হয়ে হ্যাটট্রিকসহ ২৩ রান খরচায় ৪ উইকেট শিকার করেছেন মঈন। চট্টগ্রামের হয়ে ৪৯ রান খরচায় ২ উইকেট শিকার করেন শহিদুল ইসলাম। আল আমিন হোসেন ৪ ওভারে ৬৯ রান দিয়েছেন।

এফএ/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়