শিরোনাম

প্রকাশিত : ০১ অক্টোবর, ২০২২, ০২:০৯ রাত
আপডেট : ০১ অক্টোবর, ২০২২, ০২:০৯ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ইডেন কলেজের ঘটনা, সামাজিক অবক্ষয়ের খণ্ডচিত্র

নাদেরা সুলতানা নদী

নাদেরা সুলতানা নদী: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আমি যখন পড়তে আসি, তখন আমার পরিবার রীতিমতো এক নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবার প্রতিনিধি। আমি এবং আমার পারিবারিক ব্যাকগ্রাউন্ড যা তাতে আমার মতো কারো ছাত্র রাজনীতিতে সক্রিয় অংশগ্রহণ ছিল অনেকটাই অবিশ্বাস্য। তারপরও আমি আমার বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরো সময়টা কাটিয়েছি, মিছিল মিটিং এবং সাংস্কৃতিক এক আবহে। যদিও আমার রাজনৈতিক দর্শন জীবনের এ বেলা পর্যন্ত ভেতরে থাকলেও জীবন যুদ্ধে আমি হেরে যাওয়া এক মানুষ হয়েই ক্যাম্পাস ছেড়েছি। তবে আপনারা যারা বিশ্বাস করেন এই সময়ে ইডেনে পড়া সকল মেয়েরাই কেবল কোনো না কোনো ছাত্র সংগঠনকেই রিপ্রেজেন্ট করে তাদের আমি বলবো, আমি এটা বিশ্বাস করি না। আমি বিশ্বাস করতে চাই, এই কলেজে পড়া অনেক মেয়ে আছে, আমারই মতন যে বা যারা স্বপ্ন দেখে পড়ালেখা শেষ করে সংসারের দায়িত্ব নেবে, মা বাবার পাশে আর্থিক সক্ষমতা নিয়ে দাঁড়াবে। 

এই ভূমিকা আজ কেন নিয়ে আসছি, আবারো বলি...  ৯০ এর পরের সময়ের তারুণ্যের জানা আছে বড় দুটো রাজনৈতিক সংগঠনের সাথে থাকা ছাত্র রাজনীতি মানেই তার সাথে সকল সময়ই জড়িয়ে ছিল যে ইতিহাস তার সাথে ভীষণ করে আছে অস্ত্র, বোমা, এবং ক্ষমতা।  তখন থেকেই এই বাংলাদেশ দেখে আসছে সরকার ক্ষমতায় থাকা সময়ের ছাত্র দলটির দাপটের নানা চিত্র। ক্ষমতাধারীদের প্রচ্ছন্ন ছত্রছায়ায় অপকর্মের ধরন আমাদের কিছু জানা অনেক কিছুই থাকে অজানাও। ৯০ এর পরপর মিডিয়ায় ভীষণ করে যা আসতো তা হচ্ছে এই ইডেন কলেজেই সেই সময়ের এক ছাত্রীনেত্রীর অস্ত্র বহন করার বিষয়টা। 

ক্ষমতা বলয় এ এক নেশা... বোধ, বিবেচনা, হৃদয়, মস্তিষ্ক সবই হয়ে যায় অন্ধ। দেখাতেই হবে আমি আমরা আছি কতোটা উপরে... মূলত এই ক্ষমতা নেশায় বুঁদ হয়ে থাকা ছেলেদের কর্মকাণ্ড নানান সময় মিডিয়ায় উঠে আসলেও মেয়েদের এই বিষয়টিতে সরাসরি অংশগ্রহণ ছিল অনেকটাই কম। কিন্তু একটা সময় পর এই বিশ্বাসকে টেনে হিঁচড়ে, চেয়ার নিয়ে ধাওয়া দিয়ে ছুটিয়ে দিচ্ছে বাংলার কিছু মেয়ে এবং আমি অনেকটাই নিশ্চিত এমন মারমুখো হওয়াটা ক্ষমতাসীন দলের সাথে যুক্ত থাকা ছাত্র রাজনীতির অন্যতম পরিচয় বানিয়ে ফেলা হয়েছে। যে পরিচয় নিয়ে আজকের ছাত্র নেতা কাল বড় নেতা হয়েও উঠতে পারে। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখ ভারাক্রান্ত এবং হতাশ মন নিয়ে যা বলতে চাই, এই সময়ের ইডেন কলেজের যে চিত্র আমাদের সামনে উঠে এলো তা আমাদের এই সময়েরই সামাজিক অবক্ষয় এবং ছাত্র রাজনীতির নামে করা অপকর্মের খন্ডচিত্র। দলের নীতিনির্ধারকরা এই বিষয়টা সামাল দিতে আরো কোন গোঁজামিল নিয়ে আসেন আমাদের সামনে না অন্য কিছু, আমি অপেক্ষায় রইলাম। 

বিঃদ্রঃ আমার সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ বন্ধ স্বজনদের অনেক বেশি মুখ সেই ৯০ থেকে এই সময় পর্যন্ত সরাসরি ছাত্রলীগ এবং ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে জড়িত এবং তাঁদের সাথে আমার আন্তরিক হৃদ্যতা আছে, আছে দ্বিমতও। আমি যা বলছি আমি জানি আমার কাছের মানুষেরা ঠিক তা বুঝে নেবে। অস্বীকার করবে না যেটুকু দায় তাঁদের আছে। নাদেরা সুলতানা নদী। মেলবোর্ন, অস্ট্রেলিয়া। ফেসবুক থেকে 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়