শিরোনাম
◈ কক্সবাজার থেকে আরও ১২৪২ রোহিঙ্গা গেল ভাসানচরে  ◈ ওয়ারীতে রেস্টুরেন্টের আগুন নিয়ন্ত্রণে ◈ তামিম ইকবালের হাত ধরে বিপিএলে বরিশালের প্রথম শিরোপা ◈ বেইলি রোডে ভবনে অগ্নিকাণ্ড: কাচ্চি ভাইয়ের ম্যানেজারসহ আটক ৩ ◈ বিএনপি নেতারা তাদের বিদেশী প্রভুদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছে: ওবায়দুল কাদের ◈ বেইলি রোডের আগুনে নিহতদের দাফনের জন্য ২৫ হাজার টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা ত্রাণ প্রতিমন্ত্রীর  ◈ বেইলি রোডে আগুন লাগা ভবনটিতে বিল্ডিং কোড লঙ্ঘন করা হয়েছে: মেয়র তাপস  ◈ মানুষের জীবনের দাম-ই নেই: জি এম কাদেরের শোক ◈ দেশে আইনের শাসন না থাকলে দুর্ঘটনা-বিপর্যয় ঘটতেই থাকে: মির্জা ফখরুল ◈ বেইলি রোডে বহুতল ভবনে আগুনে নিহত ৩৮ জনের মরদেহ হস্তান্তর 

প্রকাশিত : ০৫ ডিসেম্বর, ২০২৩, ০৮:২৪ রাত
আপডেট : ০৫ ডিসেম্বর, ২০২৩, ০৮:২৪ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

টানা ১৫ বার সেরা করদাতা কাউছ মিয়া

আমিনুল ইসলাম: [২] দেশের সেরা করদাতাদের তালিকায় আবারও জায়গা করে নিয়েছেন পুরান ঢাকার জর্দা ব্যবসায়ী কাউছ মিয়া। এ নিয়ে টানা ১৫ বার তিনি সেরা করদাতার সম্মান অর্জন করলেন।

[৩] মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) ২০২২-২৩ করবর্ষের সেরা করদাতাদের নাম প্রকাশ করেছে। সেখানে ব্যবসায়ী ক্যাটাগরিতে সেরা করদাতা নির্বাচিত হয়েছেন হাকিমপুরী জর্দা প্রস্তুতকারী কোম্পানির স্বত্বাধিকারী কাউছ মিয়া। 

[৪] চলতি বছর এনবিআর ১৪১ ব্যক্তি, কোম্পানি ও প্রতিষ্ঠানকে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ‘সেরা করদাতা’ হিসেবে ট্যাক্সকার্ড দেবে। 

[৫] মো. কাউছ মিয়া গত বছর ‘সিনিয়র সিটিজেন বা বয়স্ক নাগরিক’ শ্রেণিতে সেরা করদাতা হয়েছিলেন। তার আগের বছর অর্থাৎ ২০২০-২১ করবর্ষে মুজিব বর্ষের সেরা করদাতাও হয়েছিলেন তিনি। 

[৬] এ বছর আরও যারা সেরা করদাতা হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন তারা হলেন গাজী গোলাম মূর্তজা, ওয়ালটন গ্রুপের এস এম আশরাফুল আলম, এস এম শাসছুল আলম ও এস এম মাহবুবুল আলম।

[৭] ২০০৮ সাল থেকে কাউছ মিয়া দেশে ব্যবসায়ী শ্রেণিতে সর্বোচ্চ করদাতাদের একজন। গত ৬২ বছর ধরে কর দিয়ে আসছেন তিনি। প্রথম কর দেন ১৯৫৮ সালে। 

[৯] চাঁদপুর জেলার রাজরাজেশ্বর গ্রামে (ব্রিটিশ আমলের ত্রিপুরা) ১৯৩১ সালের ২৬ আগস্ট জন্মগ্রহণ করেন কাউছ মিয়া। বাবার অনিচ্ছা সত্ত্বেও তিনি মায়ের কাছ থেকে টাকা নিয়ে ১৯৫০ সালে চাঁদপুরের পুরান বাজারে মুদি দোকান দেন। পরে ধীরে ধীরে ১৮টি ব্র্যান্ডের সিগারেট, বিস্কুট ও সাবানের এজেন্ট ছিলেন।

[১০] এরপর ২০ বছর তিনি চাঁদপুরেই ব্যবসা করেন। ১৯৭০ সালে নারায়ণগঞ্জে চলে আসেন এবং তামাকের ব্যবসা শুরু করেন। বর্তমানে ৪০ থেকে ৪৫ ধরনের ব্যবসার সঙ্গে জড়িত তিনি। তবে তার মূল ব্যবসা তামাক বেচা-কেনা। সম্পাদনা: তারিক আল বান্না


এআই/টিএবি/এআরএস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়