শিরোনাম
◈ আজ বিদেশি কূটনীতিকরা ধ্বংসযজ্ঞ পরিদর্শনে যাবেন ◈ চলমান সংকটে রাজশাহীতে কৃষিখাতে দিনে ২০ কোটি টাকার ক্ষতি ◈ কারফিউ শিথিল সময়ে চলবে দূরপাল্লার বাস ◈ প্রাণহানি ও ধ্বংসাত্মক ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করেছে সম্পাদক পরিষদ ও নোয়াব ◈ ড. ইউনূস রাষ্ট্রদ্রোহী কাজ করেছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ বাংলাদেশের সহিংসতা বন্ধে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের প্রতি জরুরি আহ্বান জানিয়েছেন ড. ইউনূস ◈ নরসিংদী কারাগার থেকে পালানো ১৩৬ কয়েদির আত্মসমর্পণ ◈ কতজন শিক্ষার্থী মারা গেছেন, জানতে সময় লাগবে: শিক্ষামন্ত্রী ◈ বাংলাদেশি শ্রমিকদের জন্য ভিসা বন্ধ করল আরব আমিরাত ◈ বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সাথে সেনাবাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

প্রকাশিত : ২৫ মে, ২০২৩, ০৪:৩৪ দুপুর
আপডেট : ২৬ মে, ২০২৩, ০১:২৬ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

গাজীপুর সিটি নির্বাচনে ৪৫০ কেন্দ্রে জায়েদা খাতুন এগিয়ে

আনিস তপন, এম এম লিংকন (গাজীপুর থেকে): বড় ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই শেষ হয়েছে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ভোটগ্রহণ। এই সিটির রিটার্নিং অফিসার ফরিদুল ইসলাম আমাদের সময়. কমকে বলেন, শতকরা ৫০ ভাগ ভোট পড়েছে বলে আপাতত মনে হচ্ছে। 

নির্বাচনে মোট কেন্দ্র ৪৮০টি। এর মধ্যে ৪৫০ কেন্দ্রের ফলাফল পাওয়া গেছে। এতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আজমত উল্লাহ নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ১,৮৫,৩৭৯ ভোট। স্বতন্ত্র প্রার্থী জায়েদা খাতুন টেবিল ঘড়ি প্রতীকে পেয়েছেন ২,০৫,৪১৩ ভোট। 

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে অবিরামভাবে বিকেল ৪টায় শেষ হয় ভোটগ্রহণ। 

এই মহানগরীর নির্বাচনে মেয়র পদে মূলত লড়ছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী আজমত উল্লা ও সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীরের মা জায়েদা খাতুন। ভোটাররা বলছেন, আজমত উল্লা অনেক প্রভাবশালী প্রার্থী। দলও নিজের অনেক ভোটার রয়েছে তার। তাছাড়া দীর্ঘদিন তিনি টঙ্গী পৌরসভার মেয়রের দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি জয়ী হতে পারেন। তবে, সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীরের মা ও হাড্ডা-হাড্ডি লড়াই করবে। জায়েদা খাতুনের আগে থেকে তেমন পরিচিতি না থাকলেও তার ছেলে জাহাঙ্গীরের অনেক জনপ্রিয়তা রয়েছে। এছাড়া বিএনপির বেশরভাগ ভোট জায়েদা খাতুন পাবে বলে মনে করছেন এই সিটির ভোটাররা।

বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ৯টার দিকে ৫৭নং ওয়ার্ডে টঙ্গীর আরিচপুর মসজিদ রোডের দারুস সালাম মাদ্রাসা কেন্দ্রে ভোট দেন গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট আজমত উল্লা খান।

ভোটদান শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপে আজমত উল্লা বলেন, ফয়সালা আসমান থেকে হয়। আল্লাহ যা চান তা জনগণের মাধ্যমে প্রকাশ করবেন।উৎসবমুখর পরিবেশে একটি সুষ্ঠু এবং অবাধ নির্বাচন গাজীপুরে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভোটের যে কোনো ফলাফল অবশ্যই মেনে নেব। সবসময় জনগণের অপিনিয়নের প্রতি আমি শ্রদ্ধা দেখিয়ে আসছি। আজ জনগণ যাকে নির্বাচিত করবে, আমি সেটা অবশ্যই মেনে নেব। আমি রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে সব সময় জনগণের সঙ্গে ছিলাম।

সকাল ১০টার পর কানাইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেন গাজীপুর সিটির সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের মা জায়েদা খাতুন। এ সময় তার ছেলে জাহাঙ্গীর আলমও ভোট দেন। জাহাঙ্গীর আলমও আজকের ভোটে অনিয়ম নিয় তেমন বড় ধরনের অভিযোগ করেনি। 

সরেজমিন দেখা যায়, কোন বড় ধরনের সংঘাত ছাড়াই সকাল আটটা থেকে ইভিএমের মাধ্যমে ভোট গ্রহণ চলছে।  এরমধ্যে মেয়র থেকে কাউন্সিলর সব প্রার্থীরা নিজের ভোট দিয়েছে।

মহানগরীর ১৮৫ নং কেন্দ্রে দেখা যায়, ভোটাররা উৎসাহ ও উদ্দীপনা নিয়ে নিজের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেয়ার জন্য  দীর্ঘ লাইন ধরে দাড়িয়ে আছে। কেন্দ্র থেকে বের হওয়া কয়েকজন ভোটার জানান কোন ধরনের বিঘ্নতা ছাড়াই তারা ভোট প্রদান করেছে। ইভিএমে ভোট দিতে কোন ভোগান্তি বা ধীর গতির ঝামেলায় পড়েনি তারা।

এ কেন্দ্রের প্রিজাডিং অফিসার মমিন উদ্দিন আমাদের সময়.কমকে জানান, ষনেক সুষ্ঠু পরিবেশের মধ্যদিয়ে ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। এই কেন্দ্রে কোন ধরনের অঘটন ঘটেনি। 

ভোটের গোপন কক্ষে প্রবেশে কারণে এখনও পর্যন্ত ১০১ নং ও ১০৩ কেন্দ্রের দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। এছাড়া আর কোন অনিয়মের অভিযোগ উঠেনি। 

এদিকে বেশ কিছু কেন্দ্র থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী জায়েদা খাতুনের এজেন্টকে বের করার কথা শুনা গেলও এনিয়ে এখনও কোন অভিযোগ তুলেনি। 

দেশের সবচেয়ে বড় এ সিটিতে প্রায় ১২ লাখ ভোটার আছে। সম্পাদনা: শামসুল হক বসুনিয়া

এটি/এমএল/এসএইচবি/এসবি২

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়