শিরোনাম
◈ চার বছর পর বিধিনিষেধহীন মুক্ত পরিবেশে পহেলা বৈশাখ ◈ পহেলা বৈশাখে ইলিশের দাম চড়া ◈ নববর্ষ ১৪৩১ বঙ্গাব্দকে বরণে বর্ণাঢ্য র‌্যালি করবে আওয়ামী লীগ ◈ নতুন বছর মুক্তিযুদ্ধবিরোধী অপশক্তির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রেরণা জোগাবে: প্রধানমন্ত্রী ◈ নতুন বছর মানে ব্যর্থতা পেছনে ফেলে সমৃদ্ধ আগামী নির্মাণ করা: মির্জা ফখরুল ◈ ইসরায়েলের তেল আবিব থেকে সরাসরি ঢাকায় ফ্লাইট অবতরণ ◈ বিএনপি গুম-নির্যাতনের কাল্পনিক তথ্য দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে: ওবায়দুল কাদের ◈ সরকারি খরচে ৩০৪৮টি মামলায় আইনি সহায়তা প্রদান ◈ রেল ভ্রমণে মানুষের আস্থা তৈরি হয়েছে: রেল মন্ত্রী  ◈ অস্ট্রেলিয়ায় শপিংমলে ছুরি হামলায় নিহত ৫, আততায়ী মারা গেছে পুলিশের গুলিতে

প্রকাশিত : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০৫:০০ বিকাল
আপডেট : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০২:৪৮ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

স্ত্রীসহ পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক নজমুল আহসানের রহস্যজনক মৃত্যু

মাসুদ আলম: [২] পরিবেশ অধিদপ্তরের (ঢাকা অঞ্চল) পরিচালক সৈয়দ নজমুল আহসান (৫৬) ও তার স্ত্রী নাহিদ বিনতে আলমের (৪৮) রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। বুধবার শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে মারা যান নজমুল আহসান। বৃহস্পতিবার সকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান নাহিদ।

[৩] মিরপুর মডেল থানার ওসি মুন্সী সাব্বির আহমেদ জানান, বুধবার মিরপুর-২ অফিসার্স কমপ্লেক্সে বাসায় স্বামী-স্ত্রী উভয় অসুস্থ হয়ে পড়েন। নজমুল আহসান পরিবেশ অধিদপ্তর ঢাকা অঞ্চলের পরিচালক ছিলেন। 

[৪] ওসি আরও জানান, এই দম্পতির দুই মেয়ে একজনের বয়স ১২, আরেক জনের বয়স ১৫। তাদের কী কারণে মৃত্যু হয়েছে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে সঠিক কারণ জানা যাবে। বিষয়গুলো তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।  নজমুল আহসানের গ্রামের বাড়ি মাগুরা সদর উপজেলায়।

[৫] তবে পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, তারা বাসায় মদপান করেছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে মদের বিষক্রিয়ায়  তাদের মৃত্যু হয়েছে। 

[৬] ডিএমপির  মিরপুর বিভাগের ডিসি মো. জসীম উদ্দীন মোল্লা বলেন, মরদেহের সুরতহাল করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে সঠিক কারণ জানা যাবে।

[৭] নিহত নজমুল আহসানের ভাই সৈয়দ আবু জাফর জানান, তার ভাইয়ের মৃত্যুতে মিরপুর মডেল থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। 

[৮] এদিকে নজমুল আহসানের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী এবং মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. ফারহিনা আহমেদ।  তিনি ১৯৯৬ সালে সরকারি চাকরিতে যোগদান করে পরিবেশ অধিদপ্তরের বিভিন্ন পদে কর্মরত ছিলেন। সম্পাদনা: সমর চক্রবর্তী

এমএ/এসসি/এসবি২

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়